ঢাকা ০৩:৩৮ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৩ জুন ২০২৪, ২৯ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

স্থগিত হয়ে হলো আইপিএল

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ০৬:১৭:৪৭ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ৪ মে ২০২১ ১৭৩ বার পড়া হয়েছে
ভয়েস একাত্তর অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

ভয়েস ডিজিটাল ডেস্ক

শেষ পর্যন্ত স্থগিত হয়ে গেলে আইপিএল। বিসিসিআই-এর ভাইস-প্রেসিডেন্ট রাজীব শুক্লা সংবাদ সংস্থা এএনআইকে এতথ্য জানিয়েছেন। আইপিএল দলগুলোতে করোনার সংক্রমণ বেড়ে যাওয়ায় এমন সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। টুর্নামেন্ট শুরুর নতুন দিন পরবর্তীতে আলোচনার ভিত্তিতে ঠিক করা হবে।

মঙ্গলবার সানরাইজার্স হায়দরাবাদের কিপার-ব্যাটসম্যান ঋদ্ধিমান সাহা কভিড-১৯ পজিটিভ হওয়ার খবর প্রকাশের পর টুর্নামেন্ট স্থগিত করার এ ঘোষণা আসলো।

আইপিএলের সহসভাপতি রাজীব শুক্লা অবশ্য জানিয়েছেন, এ মৌসুমের জন্যই স্থগিত হয়ে গেল আইপিএল। জনপ্রিয় ক্রিকেটভিত্তক ওয়েবসাইট ইএসপিএন ক্রিকইনফো ও ক্রিকবাজ তাদের প্রতিবেদনে জানাচ্ছে, আইপিএল আপাতত স্থগিত ঘোষণা করা হয়েছে। তবে এখনও আনুষ্ঠানিক ঘোষণা দেওয়া হয়নি আইপিএল কর্তৃপক্ষের তরফে।

ক্রিকবাজের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, এদিন সাড়ে ১২টা নাগাদ আইপিএলের ভাগ্য নির্ধারণে বৈঠকে বসেছিলেন ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ড (বিসিসিআই) এর শীর্ষকর্তারা। প্রাথমিকভাবে তারা ভেবেছিলেন ছয় শহরের বদলে একটি শহরে খেলা চালিয়ে নেওয়ার। কিন্তু শেষ পর্যন্ত সে প্রস্তাব টেকেনি।

চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেওয়ার আগে আইপিএলে অংশগ্রহণকারী দলগুলোর কাছ থেকে তাদের মতামত জিজ্ঞেস করেছে আয়োজকরা। বেশ কয়েকটি দল পুরো আইপিএল বন্ধ করে দেওয়ার পক্ষেই নিজেদের মত দিয়েছে। তাই আপাতত স্থগিত করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

আইপিএলে এখনো পর্যন্ত আট ফ্র্যাঞ্চাইজির চারটিতে করোনা পজিটিভ হয়েছেন খেলোয়াড় ও সাপোর্ট স্টাফরা। মঙ্গলবার তৃতীয় ও চতুর্থ দল হিসেবে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত খেলোয়াড়ের কথা জানিয়েছে সানরাইজার্স হায়দরাবাদ ও দিল্লি ক্যাপিট্যালস। এর আগে কলকাতা নাইট রাইডার্সের দুই খেলোয়াড় এবং চেন্নাই সুপার কিংসের দুই সদস্য করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হন।

করোনাভাইরাসের কারণে ভারতের বর্তমান পরিস্থিতি খুবই নাজুক। এর মাঝেও অনেকটা চ্যালেঞ্জ নিয়েই আয়োজিত হচ্ছিল আইপিএল। তবে সোমবার দুটি ফ্র্যাঞ্চাইজির (কলকাতা নাইট রাইডার্স ও চেন্নাই সুপার কিংস) কয়েকজন করোনায় আক্রান্ত হওয়ার পর থেকেই আইপিএল বন্ধের দাবি ওঠে।

এমতাবস্থায় সোমবারই দিল্লির খেলোয়াড় ও সাপোর্ট স্টাফদের সবাইকে আইসোলেশনে যেতে বলে ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ড (বিসিসিআই)। কারণ গত ২৯ এপ্রিল কলকাতা নাইট রাইডার্সের (কেকেআর) বিপক্ষে ম্যাচ খেলেছে তারা। নিয়ম মেনে আইসোলেশনে আছে পুরো দিল্লি স্কোয়াড।

এ বিষয়ে দিল্লির এক কর্মকর্তা বলেন, কলকাতা নাইট রাইডার্সের শেষ প্রতিপক্ষ ছিলাম আমরা। এ কারণে বিসিসিআই থেকে আমাদের কোয়ারেন্টিনে যেতে বলা হয়েছে। এছাড়া আমাদের সবাইকে আইসোলেশনে থাকার নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে। ফলে আমরা সবাই এখন আমাদের রুমে আছি।

 

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published.

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

আপলোডকারীর তথ্য
ট্যাগস :

স্থগিত হয়ে হলো আইপিএল

আপডেট সময় : ০৬:১৭:৪৭ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ৪ মে ২০২১

ভয়েস ডিজিটাল ডেস্ক

শেষ পর্যন্ত স্থগিত হয়ে গেলে আইপিএল। বিসিসিআই-এর ভাইস-প্রেসিডেন্ট রাজীব শুক্লা সংবাদ সংস্থা এএনআইকে এতথ্য জানিয়েছেন। আইপিএল দলগুলোতে করোনার সংক্রমণ বেড়ে যাওয়ায় এমন সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। টুর্নামেন্ট শুরুর নতুন দিন পরবর্তীতে আলোচনার ভিত্তিতে ঠিক করা হবে।

মঙ্গলবার সানরাইজার্স হায়দরাবাদের কিপার-ব্যাটসম্যান ঋদ্ধিমান সাহা কভিড-১৯ পজিটিভ হওয়ার খবর প্রকাশের পর টুর্নামেন্ট স্থগিত করার এ ঘোষণা আসলো।

আইপিএলের সহসভাপতি রাজীব শুক্লা অবশ্য জানিয়েছেন, এ মৌসুমের জন্যই স্থগিত হয়ে গেল আইপিএল। জনপ্রিয় ক্রিকেটভিত্তক ওয়েবসাইট ইএসপিএন ক্রিকইনফো ও ক্রিকবাজ তাদের প্রতিবেদনে জানাচ্ছে, আইপিএল আপাতত স্থগিত ঘোষণা করা হয়েছে। তবে এখনও আনুষ্ঠানিক ঘোষণা দেওয়া হয়নি আইপিএল কর্তৃপক্ষের তরফে।

ক্রিকবাজের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, এদিন সাড়ে ১২টা নাগাদ আইপিএলের ভাগ্য নির্ধারণে বৈঠকে বসেছিলেন ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ড (বিসিসিআই) এর শীর্ষকর্তারা। প্রাথমিকভাবে তারা ভেবেছিলেন ছয় শহরের বদলে একটি শহরে খেলা চালিয়ে নেওয়ার। কিন্তু শেষ পর্যন্ত সে প্রস্তাব টেকেনি।

চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেওয়ার আগে আইপিএলে অংশগ্রহণকারী দলগুলোর কাছ থেকে তাদের মতামত জিজ্ঞেস করেছে আয়োজকরা। বেশ কয়েকটি দল পুরো আইপিএল বন্ধ করে দেওয়ার পক্ষেই নিজেদের মত দিয়েছে। তাই আপাতত স্থগিত করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

আইপিএলে এখনো পর্যন্ত আট ফ্র্যাঞ্চাইজির চারটিতে করোনা পজিটিভ হয়েছেন খেলোয়াড় ও সাপোর্ট স্টাফরা। মঙ্গলবার তৃতীয় ও চতুর্থ দল হিসেবে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত খেলোয়াড়ের কথা জানিয়েছে সানরাইজার্স হায়দরাবাদ ও দিল্লি ক্যাপিট্যালস। এর আগে কলকাতা নাইট রাইডার্সের দুই খেলোয়াড় এবং চেন্নাই সুপার কিংসের দুই সদস্য করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হন।

করোনাভাইরাসের কারণে ভারতের বর্তমান পরিস্থিতি খুবই নাজুক। এর মাঝেও অনেকটা চ্যালেঞ্জ নিয়েই আয়োজিত হচ্ছিল আইপিএল। তবে সোমবার দুটি ফ্র্যাঞ্চাইজির (কলকাতা নাইট রাইডার্স ও চেন্নাই সুপার কিংস) কয়েকজন করোনায় আক্রান্ত হওয়ার পর থেকেই আইপিএল বন্ধের দাবি ওঠে।

এমতাবস্থায় সোমবারই দিল্লির খেলোয়াড় ও সাপোর্ট স্টাফদের সবাইকে আইসোলেশনে যেতে বলে ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ড (বিসিসিআই)। কারণ গত ২৯ এপ্রিল কলকাতা নাইট রাইডার্সের (কেকেআর) বিপক্ষে ম্যাচ খেলেছে তারা। নিয়ম মেনে আইসোলেশনে আছে পুরো দিল্লি স্কোয়াড।

এ বিষয়ে দিল্লির এক কর্মকর্তা বলেন, কলকাতা নাইট রাইডার্সের শেষ প্রতিপক্ষ ছিলাম আমরা। এ কারণে বিসিসিআই থেকে আমাদের কোয়ারেন্টিনে যেতে বলা হয়েছে। এছাড়া আমাদের সবাইকে আইসোলেশনে থাকার নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে। ফলে আমরা সবাই এখন আমাদের রুমে আছি।