বুধবার, ২০ অক্টোবর ২০২১, ১০:৪৯ অপরাহ্ন

স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতা-কর্মীদের আর্তমানবতার সেবায় সম্পৃক্ত হবার নির্দেশ শেখ হাসিনা

ভয়েস ডিজিটাল ডেস্ক
  • Update Time : বুধবার, ২৮ জুলাই, ২০২১
  • ১৮ Time View

প্রধানমন্ত্রী বলেন, বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (ডাব্লিউএইচও) নির্দেশনা অনুযায়ী শতকরা ৮০ ভাগ মানুষ যাতে টিকা নিতে পারে তার ব্যবস্থা আমরা করে দিচ্ছি। ভ্যাকসিন যেখানে যা পাওয়া যাচ্ছে আমরা ক্রয় করছি। তার জন্য আলাদা টাকাও রাখা আছে। প্রয়োজনে আরও টাকা আমরা খরচ করবো।

স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতা-কর্মীদের আর্তমানবতার সেবায় সম্পৃক্ত হবার নির্দেশ দিয়ে শেখ হাসিনা বলেছেন, করোনা রোগীদের পাশে দাঁড়ানোর মাধ্যমে আর্তমানবতার সেবায় আরো বেশি কাজ

করতে হবে। করোনা টেস্ট নিয়ে গ্রামীণ জনগণের মনে যে ভীতি তা দূর করতে এবং টিকা প্রদানে উৎসাহিত করতে কাজ করতে হবে।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, করোনা টেস্ট করানো হলে তার চিকিৎসা হবে। সে অন্য কাউকে সংক্রমিত করবে না এবং নিজে বাঁচবে অন্যকেও বাঁচাবে। এই ধারণাটা মানুষ বুঝাতে হবে। আমাদের নেতা-কর্মীরা যার যার গন্তব্যে রয়েছে, সেখানে থেকেই এই সচেতনবার্তা মানুষকে জানাবে।

বাংলাদেশ আওয়ামী স্বেচ্ছাসেবক লীগের ২৭তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকীর মঙ্গলবারের আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির ভাষণে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এসব বলেন। আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কার্যালয় ২৩ বঙ্গবন্ধু এভিনিউস্থ অনুষ্ঠানে গণভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে অংশগ্রহণ করেন প্রধানমন্ত্রী।

আওয়ামী স্বেচ্ছাসেবক লীগের সাবেক সভাপতি এবং আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাছিম অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন। সংগঠনের সভাপতি নির্মল রঞ্জন গুহ স্বাগত বক্তৃতা করেন এবং সাধারণ সম্পাদক আফজালুর রহমান বাবু অনুষ্ঠানটি সঞ্চালনা করেন।

শেখ হাসিনা বলেন, মানুষের মধ্যে টিকা নিয়ে অতীতে নানারকম ভীতি ছিল। টিকা নিলে কি না কি হয়ে যাবে। এখন সবাই সে ভীতি কাটালেও একটা সমস্যা এখনও পুরোপুরি কাটেনি, যা আমি মাঝে মাঝে খবর পাই। কেউ কেউ করোনা পরীক্ষা করাতে চায় না। তাদের ধারনা টেস্ট করলে

করোনা আছে তা জানার পর সে অচ্ছুত হয়ে যাবে, তার সঙ্গে কেউ মিশবে না, এই ভয়টা কাজ করে। কিন্তু এটাতো ঠিক নয়।

এই বিষয়ে স্বেচ্ছাসেবক লীগের নেতা-কর্মীদের উদ্দেশ্যে শেখ হাসিনা বলেন, তোমরা যেহেতু মানবতার সেবায় দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছ। এটা অব্যাহত রাখবে। মনে রাখবে, এটাই আমাদের আদর্শ, এটাই আমাদের কাজ। এটাই আমাদের জাতির পিতা শিখিয়েছেন।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (ডাব্লিউএইচও) নির্দেশনা অনুযায়ী শতকরা ৮০ ভাগ মানুষ যাতে টিকা নিতে পারে তার ব্যবস্থা আমরা করে দিচ্ছি। ভ্যাকসিন যেখানে যা পাওয়া যাচ্ছে আমরা ক্রয় করছি। তার জন্য আলাদা টাকাও রাখা আছে। প্রয়োজনে আরও টাকা আমরা খরচ করবো।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, যখনই আহ্বান করেছি, আমরা দেখেছি, এই দুঃসময়ে দুর্গত মানুষের পাশে একমাত্র আওয়ামী লীগ এবং সহযোগী সংগঠনের নেতা-কর্মীরাই পাশে আছে। আমাদের প্রতিটি সহযোগী সংগঠন ব্যাপকভাবে মানুষের জন্য কাজ করে যাচ্ছে।

বাংলাদেশে আরও তো দল রয়েছে, দলের তো কোন অভাব নেই। কিন্তু দৃশ্যমান ভাবে মানুষের পাশে দাঁড়ানো এবং তাদেরকে প্রকৃতভাবে সহযোগিতা করা সেটা আমাদের স্বেচ্ছাসেবক লীগ করে যাচ্ছে। যা প্রকৃত অর্থেই জনসেবা, কোন ফটোসেশন নয়।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, একদম রোগীদের চিকিৎসা সেবা দেয়া থেকে শুরু করে অক্সিজেন সিলিন্ডার সরবরাহ করা, মানুষের খাদ্য সাহায্য করা, মাস্ক দেয়া, স্যানিটাইজার দেয়াসহ মানুষের পাশে

দাঁড়ানো এমনকি মানুষের লাশের দাফন-কাফন থেকে শুরু করে সর্বক্ষেত্রেই আমি দেখি স্বেচ্ছাসেবক লীগ অত্যন্ত চমৎকার ও সুনির্দিষ্টভাবে কাজ করে যাচ্ছে। এজন্য তিনি সকলকে আন্তরিক ধন্যবাদ জানান।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category
© All rights reserved © 2017 voiceekattor
কারিগরি সহযোগিতায়: সোহাগ রানা
11223