ঢাকা ০৫:৫৩ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ৩০ মে ২০২৪, ১৫ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম ::
বিক্রয় উন্মোচন করলো প্রপার্টি বেচাকেনার তথ্যভিত্তিক ওয়েবসাইট ‘প্রপার্টি গাইড বাংলাদেশ শীর্ষস্থান হারালেন সাকিব, র‌্যাংকিংয়ে হৃদয়-তানজিদ-মুস্তাফিজের উন্নতি ত্বক ও চুলের যত্নে নিম পাতার ব্যবহার এপেক্সে নারী-পুরুষ নিয়োগ, কর্মস্থল ঢাকা আড়ংয়ে নারী-পুরুষ নিয়োগ, কর্মস্থল ঢাকা রোহিঙ্গাদের জন্য বিশ্বব্যাংক ৭০০ মিলিয়ন ডলার দিচ্ছে দক্ষিণ কোরিয়ায় ‘মলমূত্র’ বহনকারী বেলুন পাঠাচ্ছে উত্তর কোরিয়া উপজেলা পরিষদ নির্বাচন: তৃতীয় ধাপে বিজয়ী যারা প্রধানমন্ত্রী আগামীকাল রেমালে ক্ষতিগ্রস্ত পটুয়াখালীর কলাপাড়া পরিদর্শন করবেন বাংলাদেশি ব্যবসায়ীর বিদেশে বিনোয়োগের ৭০% ভারতে, কেন্দ্রীয় ব্যাংকের তথ্য

ভারতের কোচবিহারে গুলিবিদ্ধ মিলন বাংলাদেশের কুড়িগ্রাম হাসপাতালে

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ০৬:৫৫:০৭ অপরাহ্ন, রবিবার, ১১ এপ্রিল ২০২১ ১৮৩ বার পড়া হয়েছে
ভয়েস একাত্তর অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

ভয়েস ডিজিটাল ডেস্ক
ভারতের কোচবিহারে গুলিবিদ্ধ মিলন মিয়া বাংলাদেশের কুড়িগ্রাম হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। এটি কি করে হলো তা নিয়ে কুড়িগ্রাম জেলার সীমান্তবর্তী নাগেশ্বরী থানা পুলিশ সংবাদমাধ্যকে জানিয়েছে, নাগেশ্বরী উপজেলার ভিতরবন্দ ইউনিয়নে তার নানাবাড়িতে আসা ভারতীয় আহত যুবককে উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করেছে।

ডান পাজরে গুলিবিদ্ধ মিলন মিয়ার দাবি, ভারতের কোচবিহার জেলার সাহেবগঞ্জ থানায় নির্বাচনী সহিংসতায় কারফিউ চলাকালে শনিবার সন্ধ্যায় বাড়ির বাইরে বের হয়। এ সময় চৌধুরীর হাট এলাকায় গুলিবিদ্ধ হয়। গুরুতর আহত অবস্থায় প্রতিবেশীরা তাকে চিকিৎসার জন্য বাংলাদেশের কুড়িগ্রামে নানার বাড়িতে পাঠিয়ে দেয়।

মিলন শনিবার রাতে ফুলবাড়ী উপজেলার অনন্তপুর সীমান্তের আন্তর্জাতিক সীমান্ত পিলার ৯৪৬/৫ এস এর কাছ দিয়ে বাংলাদেশে প্রবেশ করেন।

অবশ্য বিএসএফ বলছে, সীমান্তে মাদক পাচারের সময় তাকে গুলি করা হয়েছিল। মিলনের বাড়ি পশ্চিমবঙ্গের কোচবিহার জেলার সাহেবগঞ্জ থানার মাইদালের কুঠি গ্রামে। তার বাবার নাম জগু আলম। হাসপাতালের আবাসিক চিকিৎসা কর্মকর্তা পুলক কুমার সরকার সংবাদমাধ্যমকে জানিয়েছে, মিলনের পাঁজরের ডান দিকে গুলিবিদ্ধ হয়েছে।

পুলিশ রবিবার ভোর ৪টায় কুড়িগ্রাম জেনারেল হাসপাতালের ভর্তি করে। বর্তমানে তার অবস্থা স্থিতিশীল রয়েছে।

বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ লালমনিরহাট ১৫ ব্যাটালিয়নের অধিনায়ক লে. কর্নেল তৌহিদুল আলম বলেন, এ ঘটনায় সকালে বিএসএফের সঙ্গে পতাকা বৈঠক হয়েছে। সেখানে উপস্থিত ছিলেন বিএসএফএর ১৯২ ব্যাটালিয়নের কমান্ডার মি. রাওয়াড। বৈঠকে সিদ্ধান্ত অনুযায়ী ভারতীয় যুবককে সন্ধ্যার আগেই বিএসএফের কাছে হস্তান্তর কথা রয়েছে।

বৈঠকে বিএসএফ জানায়, কাঁটাতারের বেড়ার কাছে মাদক চোরাচালানের সময় মিলনকে গুলি করা হয়। পরে অহত অবস্থায় সে বাংলাদেশে অনুপ্রবেশ করে।

মিলনের নানা মকবুল হোসেন জানান, দীর্ঘদিন ধরে তার মেয়েজামাই এবং তিন নাতি ভারতে বসবাস করছে। তারা ভারতের নাগরিক। মিলন ভারতে গুলিবিদ্ধ হয়ে তার বাড়িতে আসে। পরে নাগেশ্বরী থানা পুলিশ চিকিৎসার জন্য কুড়িগ্রাম জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে ভর্তি করে।

নাগেশ্বরী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) রওশন কবির জানান, গুলিবিদ্ধ তরুণের নানার বাড়ি ভিতরবন্দ ইউনিয়নের ৮ নম্বর ওয়ার্ডের দোয়ালিপাড়া গ্রামে। সেখান থেকে আহত অবস্থায় উদ্ধার করে কুড়িগ্রাম জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

 

 

 

 

 

 

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published.

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

আপলোডকারীর তথ্য
ট্যাগস :

ভারতের কোচবিহারে গুলিবিদ্ধ মিলন বাংলাদেশের কুড়িগ্রাম হাসপাতালে

আপডেট সময় : ০৬:৫৫:০৭ অপরাহ্ন, রবিবার, ১১ এপ্রিল ২০২১

ভয়েস ডিজিটাল ডেস্ক
ভারতের কোচবিহারে গুলিবিদ্ধ মিলন মিয়া বাংলাদেশের কুড়িগ্রাম হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। এটি কি করে হলো তা নিয়ে কুড়িগ্রাম জেলার সীমান্তবর্তী নাগেশ্বরী থানা পুলিশ সংবাদমাধ্যকে জানিয়েছে, নাগেশ্বরী উপজেলার ভিতরবন্দ ইউনিয়নে তার নানাবাড়িতে আসা ভারতীয় আহত যুবককে উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করেছে।

ডান পাজরে গুলিবিদ্ধ মিলন মিয়ার দাবি, ভারতের কোচবিহার জেলার সাহেবগঞ্জ থানায় নির্বাচনী সহিংসতায় কারফিউ চলাকালে শনিবার সন্ধ্যায় বাড়ির বাইরে বের হয়। এ সময় চৌধুরীর হাট এলাকায় গুলিবিদ্ধ হয়। গুরুতর আহত অবস্থায় প্রতিবেশীরা তাকে চিকিৎসার জন্য বাংলাদেশের কুড়িগ্রামে নানার বাড়িতে পাঠিয়ে দেয়।

মিলন শনিবার রাতে ফুলবাড়ী উপজেলার অনন্তপুর সীমান্তের আন্তর্জাতিক সীমান্ত পিলার ৯৪৬/৫ এস এর কাছ দিয়ে বাংলাদেশে প্রবেশ করেন।

অবশ্য বিএসএফ বলছে, সীমান্তে মাদক পাচারের সময় তাকে গুলি করা হয়েছিল। মিলনের বাড়ি পশ্চিমবঙ্গের কোচবিহার জেলার সাহেবগঞ্জ থানার মাইদালের কুঠি গ্রামে। তার বাবার নাম জগু আলম। হাসপাতালের আবাসিক চিকিৎসা কর্মকর্তা পুলক কুমার সরকার সংবাদমাধ্যমকে জানিয়েছে, মিলনের পাঁজরের ডান দিকে গুলিবিদ্ধ হয়েছে।

পুলিশ রবিবার ভোর ৪টায় কুড়িগ্রাম জেনারেল হাসপাতালের ভর্তি করে। বর্তমানে তার অবস্থা স্থিতিশীল রয়েছে।

বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ লালমনিরহাট ১৫ ব্যাটালিয়নের অধিনায়ক লে. কর্নেল তৌহিদুল আলম বলেন, এ ঘটনায় সকালে বিএসএফের সঙ্গে পতাকা বৈঠক হয়েছে। সেখানে উপস্থিত ছিলেন বিএসএফএর ১৯২ ব্যাটালিয়নের কমান্ডার মি. রাওয়াড। বৈঠকে সিদ্ধান্ত অনুযায়ী ভারতীয় যুবককে সন্ধ্যার আগেই বিএসএফের কাছে হস্তান্তর কথা রয়েছে।

বৈঠকে বিএসএফ জানায়, কাঁটাতারের বেড়ার কাছে মাদক চোরাচালানের সময় মিলনকে গুলি করা হয়। পরে অহত অবস্থায় সে বাংলাদেশে অনুপ্রবেশ করে।

মিলনের নানা মকবুল হোসেন জানান, দীর্ঘদিন ধরে তার মেয়েজামাই এবং তিন নাতি ভারতে বসবাস করছে। তারা ভারতের নাগরিক। মিলন ভারতে গুলিবিদ্ধ হয়ে তার বাড়িতে আসে। পরে নাগেশ্বরী থানা পুলিশ চিকিৎসার জন্য কুড়িগ্রাম জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে ভর্তি করে।

নাগেশ্বরী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) রওশন কবির জানান, গুলিবিদ্ধ তরুণের নানার বাড়ি ভিতরবন্দ ইউনিয়নের ৮ নম্বর ওয়ার্ডের দোয়ালিপাড়া গ্রামে। সেখান থেকে আহত অবস্থায় উদ্ধার করে কুড়িগ্রাম জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।