ঢাকা ০৫:৩৪ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ৩০ মে ২০২৪, ১৫ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম ::
বিক্রয় উন্মোচন করলো প্রপার্টি বেচাকেনার তথ্যভিত্তিক ওয়েবসাইট ‘প্রপার্টি গাইড বাংলাদেশ শীর্ষস্থান হারালেন সাকিব, র‌্যাংকিংয়ে হৃদয়-তানজিদ-মুস্তাফিজের উন্নতি ত্বক ও চুলের যত্নে নিম পাতার ব্যবহার এপেক্সে নারী-পুরুষ নিয়োগ, কর্মস্থল ঢাকা আড়ংয়ে নারী-পুরুষ নিয়োগ, কর্মস্থল ঢাকা রোহিঙ্গাদের জন্য বিশ্বব্যাংক ৭০০ মিলিয়ন ডলার দিচ্ছে দক্ষিণ কোরিয়ায় ‘মলমূত্র’ বহনকারী বেলুন পাঠাচ্ছে উত্তর কোরিয়া উপজেলা পরিষদ নির্বাচন: তৃতীয় ধাপে বিজয়ী যারা প্রধানমন্ত্রী আগামীকাল রেমালে ক্ষতিগ্রস্ত পটুয়াখালীর কলাপাড়া পরিদর্শন করবেন বাংলাদেশি ব্যবসায়ীর বিদেশে বিনোয়োগের ৭০% ভারতে, কেন্দ্রীয় ব্যাংকের তথ্য

পিরিয়ডের ব্যাথা থেকে মুক্তি পাওয়ার ৫টি উপায়

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ১০:৪৫:০৮ অপরাহ্ন, সোমবার, ২৯ মার্চ ২০২১ ২১২ বার পড়া হয়েছে
ভয়েস একাত্তর অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

ভয়েস ডিজিটাল ডেস্ক, ঢাকা

প্রতি মাসেই শারীরিক স্বাভাবিক প্রক্রিয়ায় যন্ত্রণার মুখোমুখি হন বহু নারী। পিরিয়ডের দিনগুলো অন্য স্বাভাবিক দিনগুলোর চেয়ে একটু ভিন্ন রকম থাকে। হরমোনের কারণে কিছু শারীরিক ও মানসিক পরিবর্তন ঘটে৷ এই সময় মেয়েদের শরীর অন্য সময়ের তুলনায় একটু বেশি দুর্বল থাকে। সারাদিন কিছু খেতে ইচ্ছে না করা সহ আরো নানা সমস্যা দেখা দেয়। তবে সুস্থ থাকতে হলে অবশ্যই নিয়মিত খাওয়া দাওয়া করতে হবে।

শরীরিক সমস্যার সাথে পিরিয়ডের সময়টাতে মুড সুইং এর অনেক সমস্যা দেখা দেয়। কথায় কথায় উত্তেজিত হওয়া যাওয়া, রাগ হওয়া যাওয়াসহ বিভিন্ন সমস্যা দেখা দেয়। তবে মন ভালো রাখার চেয়ে শরীর ভালো রাখা আগে জরুরি। পিরিয়ডের সময় কিছু খাবার খেলে ব্যাথা অনেকাংশে কমে যেতে পারে।

কিশমিশ ও জাফরান:

পিরিয়ডের সময় আপনার সকালে ভেজানো কিশমিশ এবং কেসার (জাফরান) খাওয়া উচিত খালি পেটে।ব্যাথা কমাতে এবং অতিরিক্ত রক্তক্ষরণ নিয়ন্ত্রণ করতে কিশমিশ উপকারী। সেই সঙ্গে পিরিয়ডের ব্যাথা কমাতে কাজ করে জাফরান।

সব খাবারের সাথে ঘি:

পিরিয়িডের সময় সকাল, দুপুর আর রাত প্রতিবেলার খাবারে এক চা চামচ ঘি খাওয়ার চেষ্টা করুন। এতে করে ব্যাথা অনেকটা কমে আসবে।

দই ভাত:

পিরিয়ডের সময়গুলোতে আপনি দই দিয়ে ভাত খেতে পারেন।দইতে ক্যালসিয়াম রয়েছে আর ভাতে রয়েছে ম্যাগনেসিয়াম এবং থায়ামিন। এগুলো পিরিয়ডের ব্যাথা কমানার জন্য কার্যযকর।

বাদাম:

যেকোন ধরণের বাদাম বিশেষ করে কাজু বাদাম খাওয়ার চেষ্টা করুন। বাদাম পিরিয়ডের সময় আপনার পেট ব্যাথা কমাতে সাহায্য করে।

খিচুড়ি:

পিরিয়ড চলাকালীন রাতের খাবারে খিচুড়ি যোগ করতে পারেন। এতে করে আপনার বমি বমি ভাব দূর হবে, মুড সুইং এর সমস্যাও কমবে। সেই সাথে পেট ব্যাথা কমবে। খিচুড়িতে থাকা উপাদান ওভারির সুস্থতা প্রদান করে।

সূত্র: হেলথ শটস

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published.

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

আপলোডকারীর তথ্য
ট্যাগস :

পিরিয়ডের ব্যাথা থেকে মুক্তি পাওয়ার ৫টি উপায়

আপডেট সময় : ১০:৪৫:০৮ অপরাহ্ন, সোমবার, ২৯ মার্চ ২০২১

ভয়েস ডিজিটাল ডেস্ক, ঢাকা

প্রতি মাসেই শারীরিক স্বাভাবিক প্রক্রিয়ায় যন্ত্রণার মুখোমুখি হন বহু নারী। পিরিয়ডের দিনগুলো অন্য স্বাভাবিক দিনগুলোর চেয়ে একটু ভিন্ন রকম থাকে। হরমোনের কারণে কিছু শারীরিক ও মানসিক পরিবর্তন ঘটে৷ এই সময় মেয়েদের শরীর অন্য সময়ের তুলনায় একটু বেশি দুর্বল থাকে। সারাদিন কিছু খেতে ইচ্ছে না করা সহ আরো নানা সমস্যা দেখা দেয়। তবে সুস্থ থাকতে হলে অবশ্যই নিয়মিত খাওয়া দাওয়া করতে হবে।

শরীরিক সমস্যার সাথে পিরিয়ডের সময়টাতে মুড সুইং এর অনেক সমস্যা দেখা দেয়। কথায় কথায় উত্তেজিত হওয়া যাওয়া, রাগ হওয়া যাওয়াসহ বিভিন্ন সমস্যা দেখা দেয়। তবে মন ভালো রাখার চেয়ে শরীর ভালো রাখা আগে জরুরি। পিরিয়ডের সময় কিছু খাবার খেলে ব্যাথা অনেকাংশে কমে যেতে পারে।

কিশমিশ ও জাফরান:

পিরিয়ডের সময় আপনার সকালে ভেজানো কিশমিশ এবং কেসার (জাফরান) খাওয়া উচিত খালি পেটে।ব্যাথা কমাতে এবং অতিরিক্ত রক্তক্ষরণ নিয়ন্ত্রণ করতে কিশমিশ উপকারী। সেই সঙ্গে পিরিয়ডের ব্যাথা কমাতে কাজ করে জাফরান।

সব খাবারের সাথে ঘি:

পিরিয়িডের সময় সকাল, দুপুর আর রাত প্রতিবেলার খাবারে এক চা চামচ ঘি খাওয়ার চেষ্টা করুন। এতে করে ব্যাথা অনেকটা কমে আসবে।

দই ভাত:

পিরিয়ডের সময়গুলোতে আপনি দই দিয়ে ভাত খেতে পারেন।দইতে ক্যালসিয়াম রয়েছে আর ভাতে রয়েছে ম্যাগনেসিয়াম এবং থায়ামিন। এগুলো পিরিয়ডের ব্যাথা কমানার জন্য কার্যযকর।

বাদাম:

যেকোন ধরণের বাদাম বিশেষ করে কাজু বাদাম খাওয়ার চেষ্টা করুন। বাদাম পিরিয়ডের সময় আপনার পেট ব্যাথা কমাতে সাহায্য করে।

খিচুড়ি:

পিরিয়ড চলাকালীন রাতের খাবারে খিচুড়ি যোগ করতে পারেন। এতে করে আপনার বমি বমি ভাব দূর হবে, মুড সুইং এর সমস্যাও কমবে। সেই সাথে পেট ব্যাথা কমবে। খিচুড়িতে থাকা উপাদান ওভারির সুস্থতা প্রদান করে।

সূত্র: হেলথ শটস