ঢাকা ১১:১০ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ০২ ফেব্রুয়ারী ২০২৩, ২০ মাঘ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম ::
Sheikh Hasina : দেশে অনির্বাচিত সরকার আসলে সংবিধান অশুদ্ধ হবে , বইমেলার উদ্বোধন করে শেখ হাসিনা  Underground railway : পাতাল রেলের নির্মাণ কাজের উদ্বোধন ঘিরে সেজেছে পূর্বাঞ্চল Remittance : বছরের শুরুতেই প্রকাসী আয়ের মাথা উঁচু উপস্থিতি Fire at Mongla EPZ : মোংলা ইপিজেডে ব্যাগ কারখানার আগুন নিয়ন্ত্রণে আসেনি Judgment in Bengal : ভাষা শহীদদের সম্মানে বাংলায় রায় দিলেন হাইকোর্ট Taslima Nasreen : বাঙালিরা আমার যত সর্বনাশ করেছে তত আর কেউ করেনি, বললেন তসলিমা February : ভাষা মাস ‘ফেব্রুয়ারি’ Obaidul Quader : বিএনপির দম ফুরানো নীরব পদযাত্রা: ওবায়দুল কাদের Constitution  :  সংবিধানের পঞ্চদশ সংশোধনী অবৈধভাবে  ক্ষমতা দখল বন্ধ করেছে: শেখ হাসিনা  Missile  : মিসাইল ফায়ারিং যুগে বাংলাদেশ

COAL : কয়লা উত্তোলনে ভারতের নতুন মাইলফলক

  • প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ০৬:১১:৫৩ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ১১ নভেম্বর ২০২২
  • ৪৯ বার পড়া হয়েছে

ভারতের কয়লা খনি কাজে ব্যস্ত শ্রমিকরা : ছবি সংগ্রহ

‘ভারত বিশ্বের দ্বিতীয় বৃহত্তম কয়লার উৎপাদনকারী দেশ। ভারতে কয়লা উত্তোলনের ইতিহাসন প্রাচীন। সেই ১৭৭৪ সাল থেকে। আর শুরুটা হয়েছিল দামোদর নদের পশ্চিম তীরবর্তী রাণীগঞ্জ থেকে, বাণিজ্যিক ভাবে কয়লা উত্তোলন মধ্য দিয়ে’

 

ভয়েস ডিজিটাল ডেস্ক

দেশের মধ্যে কয়লার চাহিদা ও সরবরাহের মধ্যে সামঞ্জস্য রাখতে বেশকিছু পদক্ষেপ নিয়েছে ভারত সরকার। চলতি অর্থবছরের প্রথমার্ধে কয়লা উত্তোলনে নতুন মাইলফলক সৃষ্টি করেছে ভারত। এ সময় উত্তোলন হয়েছে ৩৮ কোটি ২০ লাখ টন কয়লা। যেখানে আগের বছরের একই সময় ৩১ কোটি ৫৭ লাখ টন উত্তোলন হয়েছিল। এমন তথ্যই জানাচ্ছে হেলেনিক শিপিং নিউজ।

চলতি অর্থবছরের প্রথম প্রান্তিকে নতুন সকল বাণিজ্যিক খনির কার্যক্রম শুরু করাও এক্ষেত্রে বেশ কাজে এসেছে বলে উঠে এসেছে কেয়ারএজ পরিচালিত গবেষণায়। কয়লার উত্তোলন বাড়ানো এবং রাশিয়া-ইউক্রেন যুদ্ধের কারণে বৈশ্বিক জ্বালানি সংকট বেড়ে যাওয়ায় জ্বালানি নিরাপত্তা নিশ্চিতে গত দুই বছরে ভারত সরকার বেশকিছু পদক্ষেপ ঘোষণা করে। যার মধ্যে দ্রুত কয়লা উত্তোলনের জন্য প্রণোদনা দেয়া, ২০২০ সালে চালু করা নতুন একটি কয়লা উত্তোলন স্কিম এবং কোল ইন্ডিয়ার পরিত্যক্ত কয়লা খনিগুলোর নিলাম সম্পন্ন করা।

চলতি অর্থবছরের প্রথমার্ধে মোট উত্তোলিত কয়লার ৭৮ শতাংশই এসেছে কোল ইন্ডিয়া থেকে। আগের বছরের তুলনায় রাষ্ট্রায়ত্ত প্রতিষ্ঠানটির উত্তোলন ১৯ দশমিক ৭ শতাংশ বেড়েছে। কেয়ারএজের তথ্য বলছে, চলতি অর্থবছরে কয়লার মোট উত্তোলন বেড়ে ৮৮ কোটি ২০ লাখ টনে দাঁড়াবে। সরকারের লক্ষ্যমাত্রা রয়েছে ৯০ কোটি টন উত্তোলনের।

জ্বালানি খাতে কয়লা সরবরাহ এ অর্থবছরের প্রথমার্ধে ১৬ দশমিক ৭ শতাংশ বেড়েছে। এ সময় কয়লা সরবরাহ করা হয়েছে ৪১ কোটি ৬৮ লাখ টন। বিদ্যুৎ খাত এবং ক্যাপটিভ বিদ্যুৎ খাতেও যৌথভাবে সরবরাহ হয়েছে ৩৭ কোটি ৪১ লাখ টন কয়লা।

কেয়ারএজের গবেষণা তথ্যে আরও বলছে, ২০২২ সালের এপ্রিল থেকে মে মাসে প্রবল গ্রীষ্মকাল থাকায় বিদ্যুতের চাহিদা অনেক বেড়ে যায়। এর ফলে বিদ্যুৎ খাতকে সরবরাহ বাড়াতে হয়। এরপর বর্ষাকাল আসায় দ্বিতীয় প্রান্তিকে চাহিদা কিছুটা কমে আসে। ভারতে কয়লা আমদানিও ২০২২ সালের এপ্রিল থেকে আগস্টে ১১ কোটি ৫৯ লাখ টন বেড়েছে, আগের বছরের একই সময়ে যা ছিল ৯ কোটি ২৫ লাখ টন।

রিপোর্ট অনুযায়ী, সাউথ আফ্রিকান তাপীয় কয়লার দাম ২০২১ সালের নভেম্বর থেকে বাড়তির দিকে রয়েছে। রাশিয়া-ইউক্রেনের যুদ্ধের কারণে সৃষ্ট সংকটে এ বছরের এপ্রিলে দাম টন প্রতি ৩০০ ডলার ছাড়িয়ে যায়। জুলাইয়ে তা গিয়ে দাঁড়ায় টন প্রতি ৩২৯ ডলারে। ভূরাজনৈতিক অস্থিরতার কারণে কয়লার দাম আরও বাড়বে বলে আশঙ্কা প্রকাশ করেছেন গবেষকরা।

 

ট্যাগস :

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published.

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

আপলোডকারীর তথ্য

Sheikh Hasina : দেশে অনির্বাচিত সরকার আসলে সংবিধান অশুদ্ধ হবে , বইমেলার উদ্বোধন করে শেখ হাসিনা 

Home
Account
Cart
Search

COAL : কয়লা উত্তোলনে ভারতের নতুন মাইলফলক

আপডেট সময় : ০৬:১১:৫৩ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ১১ নভেম্বর ২০২২
‘ভারত বিশ্বের দ্বিতীয় বৃহত্তম কয়লার উৎপাদনকারী দেশ। ভারতে কয়লা উত্তোলনের ইতিহাসন প্রাচীন। সেই ১৭৭৪ সাল থেকে। আর শুরুটা হয়েছিল দামোদর নদের পশ্চিম তীরবর্তী রাণীগঞ্জ থেকে, বাণিজ্যিক ভাবে কয়লা উত্তোলন মধ্য দিয়ে’

 

ভয়েস ডিজিটাল ডেস্ক

দেশের মধ্যে কয়লার চাহিদা ও সরবরাহের মধ্যে সামঞ্জস্য রাখতে বেশকিছু পদক্ষেপ নিয়েছে ভারত সরকার। চলতি অর্থবছরের প্রথমার্ধে কয়লা উত্তোলনে নতুন মাইলফলক সৃষ্টি করেছে ভারত। এ সময় উত্তোলন হয়েছে ৩৮ কোটি ২০ লাখ টন কয়লা। যেখানে আগের বছরের একই সময় ৩১ কোটি ৫৭ লাখ টন উত্তোলন হয়েছিল। এমন তথ্যই জানাচ্ছে হেলেনিক শিপিং নিউজ।

চলতি অর্থবছরের প্রথম প্রান্তিকে নতুন সকল বাণিজ্যিক খনির কার্যক্রম শুরু করাও এক্ষেত্রে বেশ কাজে এসেছে বলে উঠে এসেছে কেয়ারএজ পরিচালিত গবেষণায়। কয়লার উত্তোলন বাড়ানো এবং রাশিয়া-ইউক্রেন যুদ্ধের কারণে বৈশ্বিক জ্বালানি সংকট বেড়ে যাওয়ায় জ্বালানি নিরাপত্তা নিশ্চিতে গত দুই বছরে ভারত সরকার বেশকিছু পদক্ষেপ ঘোষণা করে। যার মধ্যে দ্রুত কয়লা উত্তোলনের জন্য প্রণোদনা দেয়া, ২০২০ সালে চালু করা নতুন একটি কয়লা উত্তোলন স্কিম এবং কোল ইন্ডিয়ার পরিত্যক্ত কয়লা খনিগুলোর নিলাম সম্পন্ন করা।

চলতি অর্থবছরের প্রথমার্ধে মোট উত্তোলিত কয়লার ৭৮ শতাংশই এসেছে কোল ইন্ডিয়া থেকে। আগের বছরের তুলনায় রাষ্ট্রায়ত্ত প্রতিষ্ঠানটির উত্তোলন ১৯ দশমিক ৭ শতাংশ বেড়েছে। কেয়ারএজের তথ্য বলছে, চলতি অর্থবছরে কয়লার মোট উত্তোলন বেড়ে ৮৮ কোটি ২০ লাখ টনে দাঁড়াবে। সরকারের লক্ষ্যমাত্রা রয়েছে ৯০ কোটি টন উত্তোলনের।

জ্বালানি খাতে কয়লা সরবরাহ এ অর্থবছরের প্রথমার্ধে ১৬ দশমিক ৭ শতাংশ বেড়েছে। এ সময় কয়লা সরবরাহ করা হয়েছে ৪১ কোটি ৬৮ লাখ টন। বিদ্যুৎ খাত এবং ক্যাপটিভ বিদ্যুৎ খাতেও যৌথভাবে সরবরাহ হয়েছে ৩৭ কোটি ৪১ লাখ টন কয়লা।

কেয়ারএজের গবেষণা তথ্যে আরও বলছে, ২০২২ সালের এপ্রিল থেকে মে মাসে প্রবল গ্রীষ্মকাল থাকায় বিদ্যুতের চাহিদা অনেক বেড়ে যায়। এর ফলে বিদ্যুৎ খাতকে সরবরাহ বাড়াতে হয়। এরপর বর্ষাকাল আসায় দ্বিতীয় প্রান্তিকে চাহিদা কিছুটা কমে আসে। ভারতে কয়লা আমদানিও ২০২২ সালের এপ্রিল থেকে আগস্টে ১১ কোটি ৫৯ লাখ টন বেড়েছে, আগের বছরের একই সময়ে যা ছিল ৯ কোটি ২৫ লাখ টন।

রিপোর্ট অনুযায়ী, সাউথ আফ্রিকান তাপীয় কয়লার দাম ২০২১ সালের নভেম্বর থেকে বাড়তির দিকে রয়েছে। রাশিয়া-ইউক্রেনের যুদ্ধের কারণে সৃষ্ট সংকটে এ বছরের এপ্রিলে দাম টন প্রতি ৩০০ ডলার ছাড়িয়ে যায়। জুলাইয়ে তা গিয়ে দাঁড়ায় টন প্রতি ৩২৯ ডলারে। ভূরাজনৈতিক অস্থিরতার কারণে কয়লার দাম আরও বাড়বে বলে আশঙ্কা প্রকাশ করেছেন গবেষকরা।