ঢাকা ০৭:৪৯ অপরাহ্ন, শনিবার, ২০ এপ্রিল ২০২৪, ৭ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

সন্ধ্যার আগেই শেষ করতে হবে পহেলা বৈশাখের আয়োজন

নিজস্ব প্রতিনিধি, ঢাকা
  • আপডেট সময় : ০৬:০১:৩৯ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ২৯ মার্চ ২০২৪ ৯৩ বার পড়া হয়েছে

ফাইল ছবি

ভয়েস একাত্তর অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

 

বাংলা নববর্ষ পহেলা বৈশাখে আয়োজিত অনুষ্ঠানমালা সন্ধ্যার আগেই শেষ করতে হবে।

এর কোন ব্যত্যয় ঘটলেই কঠোর আইনি ব্যবস্থা নেওয়ার কথা জানিয়ে দিল ঢাকা মহানগর পুলিশ (ডিএমপি)। নববর্ষ ঘিরে যে কোনো ধরনের অপপ্রচার ঠেকাতে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমেও নজরদারি বাড়াবে ডিএমপি।

বর্ষবরণ অনুষ্ঠানে ওড়ানো যাবে না ফানুস, কোন আতশবাজি পোড়ানো যাবে না, নিষেধ করা হয়েছে ভুভুজেলা। আর ইফতারের আগেই সকল আয়োজন শেষ করতে হবে।

প্রতি বছর বাড়তি নিরাপত্তা নেওয়া হয় বৈশাখী অনুষ্ঠানকে ঘিরে। এরই ধারাবাহিকতায় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সম্মেলন কক্ষে বাংলা নববর্ষ উদযাপন উপলক্ষে আইনশৃঙ্খলা-সংক্রান্ত সভা হয়। সভায় উল্লেখিত ১৩টি নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে।

ডিএমপির অতিরিক্ত কমিশনার (ক্রাইম) ড. খন্দকার মহিদ উদ্দিন সংবাদমাধ্যমকে বলেন, আমাদের প্রত্যেকে নিজ নিজ দায়িত্ব থেকে ফানুসের ব্যাপারে, আগুনের ব্যাপারে সচেতন না হতে হবে।

যদি কেউ আইন অমান্য করে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের অর্ডিন্যান্স অনুযায়ী আইন প্রয়োগ করা হবে। ১৩ নির্দেশনার কোনোটি অমান্য করলে কঠোর ব্যবস্থা নেবে পুলিশ।

প্রতি বছরের মতো এবারও গুরুত্বপূর্ণ স্থান ও স্থাপনায় বিশেষ নিরাপত্তা দেওয়া হবে। ঢাকা মহানগর ছাড়াও সারা দেশে গুরুত্বপূর্ণ পয়েন্টে অগ্নিনির্বাপক গাড়ি, অ্যাম্বুল্যান্স ও মেডিকেল টিম থাকবে বলেও জানানো হয়।

 

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published.

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

আপলোডকারীর তথ্য
ট্যাগস :

সন্ধ্যার আগেই শেষ করতে হবে পহেলা বৈশাখের আয়োজন

আপডেট সময় : ০৬:০১:৩৯ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ২৯ মার্চ ২০২৪

 

বাংলা নববর্ষ পহেলা বৈশাখে আয়োজিত অনুষ্ঠানমালা সন্ধ্যার আগেই শেষ করতে হবে।

এর কোন ব্যত্যয় ঘটলেই কঠোর আইনি ব্যবস্থা নেওয়ার কথা জানিয়ে দিল ঢাকা মহানগর পুলিশ (ডিএমপি)। নববর্ষ ঘিরে যে কোনো ধরনের অপপ্রচার ঠেকাতে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমেও নজরদারি বাড়াবে ডিএমপি।

বর্ষবরণ অনুষ্ঠানে ওড়ানো যাবে না ফানুস, কোন আতশবাজি পোড়ানো যাবে না, নিষেধ করা হয়েছে ভুভুজেলা। আর ইফতারের আগেই সকল আয়োজন শেষ করতে হবে।

প্রতি বছর বাড়তি নিরাপত্তা নেওয়া হয় বৈশাখী অনুষ্ঠানকে ঘিরে। এরই ধারাবাহিকতায় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সম্মেলন কক্ষে বাংলা নববর্ষ উদযাপন উপলক্ষে আইনশৃঙ্খলা-সংক্রান্ত সভা হয়। সভায় উল্লেখিত ১৩টি নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে।

ডিএমপির অতিরিক্ত কমিশনার (ক্রাইম) ড. খন্দকার মহিদ উদ্দিন সংবাদমাধ্যমকে বলেন, আমাদের প্রত্যেকে নিজ নিজ দায়িত্ব থেকে ফানুসের ব্যাপারে, আগুনের ব্যাপারে সচেতন না হতে হবে।

যদি কেউ আইন অমান্য করে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের অর্ডিন্যান্স অনুযায়ী আইন প্রয়োগ করা হবে। ১৩ নির্দেশনার কোনোটি অমান্য করলে কঠোর ব্যবস্থা নেবে পুলিশ।

প্রতি বছরের মতো এবারও গুরুত্বপূর্ণ স্থান ও স্থাপনায় বিশেষ নিরাপত্তা দেওয়া হবে। ঢাকা মহানগর ছাড়াও সারা দেশে গুরুত্বপূর্ণ পয়েন্টে অগ্নিনির্বাপক গাড়ি, অ্যাম্বুল্যান্স ও মেডিকেল টিম থাকবে বলেও জানানো হয়।