ঢাকা ০৬:০১ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ৩০ মে ২০২৪, ১৬ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম ::
বিক্রয় উন্মোচন করলো প্রপার্টি বেচাকেনার তথ্যভিত্তিক ওয়েবসাইট ‘প্রপার্টি গাইড বাংলাদেশ শীর্ষস্থান হারালেন সাকিব, র‌্যাংকিংয়ে হৃদয়-তানজিদ-মুস্তাফিজের উন্নতি ত্বক ও চুলের যত্নে নিম পাতার ব্যবহার এপেক্সে নারী-পুরুষ নিয়োগ, কর্মস্থল ঢাকা আড়ংয়ে নারী-পুরুষ নিয়োগ, কর্মস্থল ঢাকা রোহিঙ্গাদের জন্য বিশ্বব্যাংক ৭০০ মিলিয়ন ডলার দিচ্ছে দক্ষিণ কোরিয়ায় ‘মলমূত্র’ বহনকারী বেলুন পাঠাচ্ছে উত্তর কোরিয়া উপজেলা পরিষদ নির্বাচন: তৃতীয় ধাপে বিজয়ী যারা প্রধানমন্ত্রী আগামীকাল রেমালে ক্ষতিগ্রস্ত পটুয়াখালীর কলাপাড়া পরিদর্শন করবেন বাংলাদেশি ব্যবসায়ীর বিদেশে বিনোয়োগের ৭০% ভারতে, কেন্দ্রীয় ব্যাংকের তথ্য

ভারত-নেপাল পর্যবেক্ষণ মেকানিজম সভায় দ্বিপাক্ষিক সহযোগিতায় প্রকল্পগুলির বাস্তবায়ন পর্যালোচনা করে

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ০২:৪৮:২৮ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ২৮ অগাস্ট ২০২০ ৫৩৪ বার পড়া হয়েছে
ভয়েস একাত্তর অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

ভয়েস ডিজিটাল ডেস্ক

সম্প্রতি কাঠমান্ডুতে অনুষ্ঠিত নেপাল-ভারত পর্যটন মেকানিজমের অষ্টম বৈঠকে ভারত ও
নেপাল দ্বিপাক্ষিক সহযোগিতায় প্রকল্পগুলি বাস্তবায়নের পুরোপুরি পর্যালোচনা করেছে। বিদেশ সচিব শঙ্কর দাস বৈরাগী এবং নেপালে ভারতের রাষ্ট্রদূত বিনয় মোহন কাওয়াত্রার সহ-সভাপতিত্বে নেপাল-ভারত পর্যবেক্ষণ প্রক্রিয়ার অষ্টম বৈঠক কাঠমান্ডুতে অনুষ্ঠিত
হয়েছে। বৈঠকে এর বাস্তবায়নের উপর বিশদ পর্যালোচনা করা হয়েছিল দ্বিপাক্ষিক সহযোগিতায় প্রকল্পগুলি, বিদেশ মন্ত্রক, নেপাল থেকে প্রকাশিত এক বিবৃতিতে বলা হয়েছে। বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, বৈঠকে নেপাল-ভারত দ্বিপাক্ষিক সহযোগিতায় তরাই সড়ক, ক্রস বর্ডার রেলপথ, অরুণ-তৃতীয় জলবিদ্যুৎ প্রকল্প, পেট্রোলিয়াম পণ্য পাইপলাইন, পঞ্চেশ্বর বহুমুখী প্রকল্প,
উত্তর-পরবর্তী আওতাধীন চলমান প্রকল্পগুলির বাস্তবায়নের স্থিতির বিষয়ে আলোচনা হয়েছে। ভূমিকম্প পুনর্গঠন, সেচ, বিদ্যুৎ ও সংক্রমণ লাইন, নেপাল পুলিশ একাডেমি নির্মাণ, ইন্টিগ্রেটেড চেকপোস্টগুলি, রামায়ণ সার্কিট, এইচ আই সি ডি পি, মোটেটিভ ব্রিজ ওয়ার মহাকালী নদী, কৃষি ও সাংস্কৃতিক যবৎরঃধমবতিহ্য প্রমুখ। উভয় পক্ষ দ্বিপাক্ষিক প্রকল্পগুলির দ্রুত বাস্তবায়নের প্রয়োজনীয়তার উপর গুরুত্বারোপ করেছে। সেই প্রসঙ্গে তারা বাস্তবায়নের সময়কালে সমস্যা ও প্রতিবন্ধকতাগুলি সময়মতো সমাধানের জন্য প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণে সম্মত হয়েছে, বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে। দ্বিপাক্ষিক প্রকল্পগুলির বাস্তবায়ন তদারকি করতে এবং সময় মতোভাবে সমাপ্তির জন্য প্রয়োজনীয়
পদক্ষেপ গ্রহণের জন্য ২০০১ সালের সেপ্টেম্বরে নেপালের প্রধানমন্ত্রী ভারতের রাষ্ট্রীয় সফরের পরে নেপাল-ভারত পর্যবেক্ষণ মেকানিজম প্রতিষ্ঠা করা হয়েছিল। বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়েছে, প্রক্রিয়ার নবম সভা পারস্পরিক সুবিধাজনক তারিখে অনুষ্ঠিত হবে।
কাঠমান্ডুতে ভারতীয় দূতাবাস এক বিবৃতিতে জানায়, বৈঠকে গত বছরের ৮ জুলাই সপ্তম
বৈঠকের পর থেকে দ্বিপক্ষীয় অর্থনৈতিক ও উন্নয়ন সহযোগিতা প্রকল্পের ব্যাপক পর্যালোচনা করা হয়। উভয় পক্ষই ইস্যুগুলি নিয়ে আলোচনা করেছেন এবং তাদের বাস্তবায়ন দ্রুত করতে সম্মত হয়েছেন। সহ-সভাপতিত্বকারীরা গত এক বছরে গোরখা ও নুওয়াকোট জেলায় ভূমিকম্প ক্ষতিগ্রস্থ ৪ (,৩০১
ঘর (ভারতের প্রতিশ্রুতিবদ্ধ ৫০,০০০ বাড়ির মধ্যে) পুনর্র্নিমাণ, মতিহারী-আমলেখগঞ্জ আন্তঃসীমান্তের পরিচালনা সহ উন্নয়ন প্রকল্পগুলির অগ্রগতি উল্লেখ করেছে বিবৃতিতে বলা হয়েছে, পেট্রোলিয়াম পণ্য পাইপলাইন, বিরাটনগরের ইন্টিগ্রেটেড চেকপোস্ট এবং হাই ইমপ্যাক্ট কমিউনিটি ডেভলপমেন্ট প্রজেক্টস।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published.

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

আপলোডকারীর তথ্য
ট্যাগস :

ভারত-নেপাল পর্যবেক্ষণ মেকানিজম সভায় দ্বিপাক্ষিক সহযোগিতায় প্রকল্পগুলির বাস্তবায়ন পর্যালোচনা করে

আপডেট সময় : ০২:৪৮:২৮ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ২৮ অগাস্ট ২০২০

ভয়েস ডিজিটাল ডেস্ক

সম্প্রতি কাঠমান্ডুতে অনুষ্ঠিত নেপাল-ভারত পর্যটন মেকানিজমের অষ্টম বৈঠকে ভারত ও
নেপাল দ্বিপাক্ষিক সহযোগিতায় প্রকল্পগুলি বাস্তবায়নের পুরোপুরি পর্যালোচনা করেছে। বিদেশ সচিব শঙ্কর দাস বৈরাগী এবং নেপালে ভারতের রাষ্ট্রদূত বিনয় মোহন কাওয়াত্রার সহ-সভাপতিত্বে নেপাল-ভারত পর্যবেক্ষণ প্রক্রিয়ার অষ্টম বৈঠক কাঠমান্ডুতে অনুষ্ঠিত
হয়েছে। বৈঠকে এর বাস্তবায়নের উপর বিশদ পর্যালোচনা করা হয়েছিল দ্বিপাক্ষিক সহযোগিতায় প্রকল্পগুলি, বিদেশ মন্ত্রক, নেপাল থেকে প্রকাশিত এক বিবৃতিতে বলা হয়েছে। বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, বৈঠকে নেপাল-ভারত দ্বিপাক্ষিক সহযোগিতায় তরাই সড়ক, ক্রস বর্ডার রেলপথ, অরুণ-তৃতীয় জলবিদ্যুৎ প্রকল্প, পেট্রোলিয়াম পণ্য পাইপলাইন, পঞ্চেশ্বর বহুমুখী প্রকল্প,
উত্তর-পরবর্তী আওতাধীন চলমান প্রকল্পগুলির বাস্তবায়নের স্থিতির বিষয়ে আলোচনা হয়েছে। ভূমিকম্প পুনর্গঠন, সেচ, বিদ্যুৎ ও সংক্রমণ লাইন, নেপাল পুলিশ একাডেমি নির্মাণ, ইন্টিগ্রেটেড চেকপোস্টগুলি, রামায়ণ সার্কিট, এইচ আই সি ডি পি, মোটেটিভ ব্রিজ ওয়ার মহাকালী নদী, কৃষি ও সাংস্কৃতিক যবৎরঃধমবতিহ্য প্রমুখ। উভয় পক্ষ দ্বিপাক্ষিক প্রকল্পগুলির দ্রুত বাস্তবায়নের প্রয়োজনীয়তার উপর গুরুত্বারোপ করেছে। সেই প্রসঙ্গে তারা বাস্তবায়নের সময়কালে সমস্যা ও প্রতিবন্ধকতাগুলি সময়মতো সমাধানের জন্য প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণে সম্মত হয়েছে, বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে। দ্বিপাক্ষিক প্রকল্পগুলির বাস্তবায়ন তদারকি করতে এবং সময় মতোভাবে সমাপ্তির জন্য প্রয়োজনীয়
পদক্ষেপ গ্রহণের জন্য ২০০১ সালের সেপ্টেম্বরে নেপালের প্রধানমন্ত্রী ভারতের রাষ্ট্রীয় সফরের পরে নেপাল-ভারত পর্যবেক্ষণ মেকানিজম প্রতিষ্ঠা করা হয়েছিল। বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়েছে, প্রক্রিয়ার নবম সভা পারস্পরিক সুবিধাজনক তারিখে অনুষ্ঠিত হবে।
কাঠমান্ডুতে ভারতীয় দূতাবাস এক বিবৃতিতে জানায়, বৈঠকে গত বছরের ৮ জুলাই সপ্তম
বৈঠকের পর থেকে দ্বিপক্ষীয় অর্থনৈতিক ও উন্নয়ন সহযোগিতা প্রকল্পের ব্যাপক পর্যালোচনা করা হয়। উভয় পক্ষই ইস্যুগুলি নিয়ে আলোচনা করেছেন এবং তাদের বাস্তবায়ন দ্রুত করতে সম্মত হয়েছেন। সহ-সভাপতিত্বকারীরা গত এক বছরে গোরখা ও নুওয়াকোট জেলায় ভূমিকম্প ক্ষতিগ্রস্থ ৪ (,৩০১
ঘর (ভারতের প্রতিশ্রুতিবদ্ধ ৫০,০০০ বাড়ির মধ্যে) পুনর্র্নিমাণ, মতিহারী-আমলেখগঞ্জ আন্তঃসীমান্তের পরিচালনা সহ উন্নয়ন প্রকল্পগুলির অগ্রগতি উল্লেখ করেছে বিবৃতিতে বলা হয়েছে, পেট্রোলিয়াম পণ্য পাইপলাইন, বিরাটনগরের ইন্টিগ্রেটেড চেকপোস্ট এবং হাই ইমপ্যাক্ট কমিউনিটি ডেভলপমেন্ট প্রজেক্টস।