বুধবার, ২২ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৫:৪১ পূর্বাহ্ন

ভারতের পাঞ্জাবে মদ পানে ৮৬ জনের মৃত্যু

Reporter Name
  • Update Time : রবিবার, ২ আগস্ট, ২০২০
  • ৩৪৬ Time View

ভয়েস ডিজিটাল ডেস্ক
ভারতে ভেজার মদ পানে প্রতিবছর শ শ মানুষের প্রাণহানি ঘটে। অভিযোগ রয়েছে স্থানীয় অনেকেই অবৈধভাবে একসঙ্গে প্রচুর মদ তৈরি করে রাখা হয়। এরপর রাস্তার পাশের ছোট ছোট দোকানগুলোতে এসব মদ বিক্রি করা হয়। ওসব দোকানের আড্ডার সঙ্গে চরে মদ পান। দামেও সস্তা। এসব মদ খেয়ে অনেকে অসুস্থ হয়ে পড়েন। যাদের অনেকে সউস্থ হয়ে ওঠেন না। অনেকে আবার হাসপাতালে চিকিৎসা নিয়ে সুস্থ হন।
বিন্তু এবারে ভারতের পাঞ্জাব প্রদেশে ঘটে গেলো বড় ধরণের ঘটনা। ভেজাল মদ খেয়ে কয়েকদিনে কমপক্ষে ৮৬ জন মারা যান। শনিবার পুলিশ শতাধিক জায়গায় অভিযান চালিয়ে অনেক মদ জব্দ এবং ২৫ জনকে গ্রেফতার করেছে। শুক্রবারের ঘটনায় পাঞ্জাবের মুখ্যমন্ত্রী অমরিন্দর সিং ভেজাল মদ খেয়ে এত মানুষের প্রাণহানির ঘটনায় তদন্ত করার নির্দেশ দিয়েছেন। দেশটির উত্তরাঞ্চলের ওই প্রদেশটির সরকারি কর্মকর্তাদের একথা জানিয়েছেন বলে সংবাদমাধ্যম জানিয়েছে।
আরও জানা যায়, শুক্রবারও মদ না পেয়ে হ্যান্ড স্যানিটাইজার খেয়ে দেশটির দক্ষিণাঞ্চলীয় রাজ্য অন্ধ্রপ্রদেশে ১০ জন মারা গেছেন। অনুমোদন নিয়ে তৈরি মদের চেয়ে ভারতে ভেজাল মদ পাওয়া যায় সাধারণ গ্রাম কিংবা মফস্বল এলাকাগুলোতে। আর এসব মদ খেয়ে গ্রামীণ এলাকাগুলোতেই মৃত্যুর ঘটনা ঘটে। ভেজাল মদ প্রস্তুতকারকরা মাঝে মধ্যেই এসব মদে মিথানল মিশিয়ে থাকেন। এটি অ্যালকোহলের একটি অত্যধিক বিষাক্ত রূপ যা কখনও কখনও এর শক্তি বাড়ানোর জন্য মদের মিশ্রণে অ্যান্টি-ফ্রিজ হিসেবে ব্যবহৃত হয়। যদি অল্প পরিমাণেও খাওয়া হয় তবে মিথানল অন্ধত্ব, লিভার অচল এবং মৃত্যুর কারণ হতে পারে।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category
© All rights reserved © 2017 voiceekattor
কারিগরি সহযোগিতায়: সোহাগ রানা
11223