ঢাকা ০৬:৩৭ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ৩০ মে ২০২৪, ১৬ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম ::
বিক্রয় উন্মোচন করলো প্রপার্টি বেচাকেনার তথ্যভিত্তিক ওয়েবসাইট ‘প্রপার্টি গাইড বাংলাদেশ শীর্ষস্থান হারালেন সাকিব, র‌্যাংকিংয়ে হৃদয়-তানজিদ-মুস্তাফিজের উন্নতি ত্বক ও চুলের যত্নে নিম পাতার ব্যবহার এপেক্সে নারী-পুরুষ নিয়োগ, কর্মস্থল ঢাকা আড়ংয়ে নারী-পুরুষ নিয়োগ, কর্মস্থল ঢাকা রোহিঙ্গাদের জন্য বিশ্বব্যাংক ৭০০ মিলিয়ন ডলার দিচ্ছে দক্ষিণ কোরিয়ায় ‘মলমূত্র’ বহনকারী বেলুন পাঠাচ্ছে উত্তর কোরিয়া উপজেলা পরিষদ নির্বাচন: তৃতীয় ধাপে বিজয়ী যারা প্রধানমন্ত্রী আগামীকাল রেমালে ক্ষতিগ্রস্ত পটুয়াখালীর কলাপাড়া পরিদর্শন করবেন বাংলাদেশি ব্যবসায়ীর বিদেশে বিনোয়োগের ৭০% ভারতে, কেন্দ্রীয় ব্যাংকের তথ্য

ভারতীয় হাই কমিশনের উদ্যোগে আইটিইসি অ্যালামনাই মিট ২০২৩

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ০৬:৩৯:০৯ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ৯ মার্চ ২০২৩ ৭৪ বার পড়া হয়েছে

ছবি ভারতীয় হাইকমিশনের সৌজন্যে

ভয়েস একাত্তর অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

আইটিইসি বাংলাদেশসহ ১৬০টিরও বেশি দেশ থেকে ১৬০,০০০ এরও বেশি অংশগ্রহণকারীদের প্রশিক্ষণ দেওয়া হয়েছে। এই কর্মসূচিটি সক্ষমতা ও দক্ষতা বৃদ্ধি এবং দুই দেশের মধ্যে সহযোগিতা বৃদ্ধিতে সহায়ক ভূমিকা রেখে চলেছে

 

নিজস্ব প্রতিনিধি, ঢাকা

ঢাকায় ভারতীয় হাই কমিশন ইন্ডিয়ান টেকনিক্যাল অ্যান্ড ইকোনমিক কো-অপারেশন প্রোগ্রাম (আইপিইসি) প্রাক্তন ছাত্র-সমাবেশের আয়োজন করে। অনুষ্ঠানে হাইকমিশনার প্রণয় ভার্মা বাংলাদেশের বিভিন্ন ক্ষেত্রে গুরুত্বপূর্ণ পদে আইটিইসি প্রাক্তন ছাত্ররা অধিষ্ঠিত হওয়ায় আন্তরিক অভিনন্দন জানিয়েছেন।

আইইটিসি হচ্ছে ভারত সরকারের একটি ফ্ল্যাগশিপ প্রোগ্রাম, যার লক্ষ্য উন্নয়নশীল দেশগুলির সাথে ভারতের দক্ষতা এবং জ্ঞান ভাগ করে নেওয়া।

প্রতিষ্ঠার পর থেকে, আইটিইসি বাংলাদেশসহ ১৬০টিরও বেশি দেশ থেকে ১৬০,০০০ এরও বেশি অংশগ্রহণকারীদের প্রশিক্ষণ দেওয়া হয়েছে। এই কর্মসূচিটি সক্ষমতা ও দক্ষতা বৃদ্ধি এবং দুই দেশের মধ্যে সহযোগিতা বৃদ্ধিতে সহায়ক ভূমিকা রেখে চলেছে।

এখনও পর্যন্ত বাংলাদেশের ৪,৫০০ টিরও বেশি তরুণ পেশাদার ভারতীয় প্রিমিয়ার প্রতিষ্ঠানে বিভিন্ন আইটিইসি প্রোগ্রামের অধীনে কোর্স সম্পন্ন করেছে। পাবলিক পলিসির কোর্স থেকে শুরু করে বিশেষায়িত কৃষি এবং শিল্প ডোমেন থেকে নতুন শক্তি এবং আধুনিক প্রযুক্তি পর্যন্ত বিস্তৃত। শুধু তাই নয়, বাংলাদেশ সরকারের সুনির্দিষ্ট অনুরোধে দর্জি তৈরি কোর্সও পরিচালিত হয়েছে।

ভারতের ভোপালে জাতীয় বিচার বিভাগীয় একাডেমিতে বাংলাদেশের বিচারক এবং বিচার বিভাগীয় কর্মকর্তাদের ৪টি ব্যাচের বিশেষ প্রশিক্ষণ প্রোগ্রামের প্রস্তাব দেওয়া হয়েছে। যা কিনা ২০২২-২৩ সময়কালীন শেষ হবার কথা।

একইভাবে মিড-ক্যারিয়ার ট্রেনিং প্রোগ্রামের আয়োজন করা হয়েছে, যেখানে বাংলাদেশী সিভিল সার্ভেন্টদের মুসৌরিতে অবস্থিত ভারতের ন্যাশনাল সেন্টার ফর গুড গভর্নেন্সে প্রশিক্ষণ দেওয়া হয়েছে। অধিকন্তু, ৫৬ জন বাংলাদেশী অংশগ্রহণকারী বিভিন্ন ক্ষেত্রের (বেসরকারি খাত সহ) সারা বিশ্ব থেকে প্রার্থীদের সাথে প্রশিক্ষণ কর্মসূচি গ্রহণ করেছে, যেখানে ৬৭ জন ২০২২-২৩ সালে বাংলাদেশে ই-আইটইসি প্রোগ্রাম থেকে উপকৃত হয়েছে।

২ শে মার্চ ২০২৩-এ আইটিইসি অ্যালামনাই মিট চলাকালীন, ভারতের হাইকমিশন বাংলাদেশের সমস্ত আইটিইসি অ্যালামনাইদের জন্য একটি প্ল্যাটফর্ম হিসাবে বাংলাদেশে একটি আইটিইসি অ্যালামনাই অ্যাসোসিয়েশন (আইএএবি) গঠনের ঘোষণা দেয়।

আইএএবি ও আইটিইসি প্রাক্তন ছাত্রদের সংযুক্ত থাকার এবং তাদের অভিজ্ঞতা শেয়ার করার জন্য একটি ফোরাম হিসাবে কাজ করবে। এটি প্রাক্তন ছাত্রদের জ্ঞান এবং দক্ষতা ভাগ করে ভারত ও বাংলাদেশ উভয়ের উন্নয়নে অবদান রাখার সুযোগও দেবে। এসোসিয়েশন বাংলাদেশে ভারতীয় হাইকমিশন এবং অন্যান্য স্টেকহোল্ডারদের সাথে প্রশিক্ষণ কর্মসূচি, কর্মশালা এবং অন্যান্য ইভেন্ট আয়োজনের জন্য ঘনিষ্ঠভাবে কাজ করবে।

বাংলাদেশে আইটিইসির সমস্ত প্রাক্তন ছাত্রদের অ্যাসোসিয়েশনে যোগদান এবং এর কার্যক্রমে অংশগ্রহণ করার জন্য অনুরোধ করা হয়েছিল। ২রা মার্চ, ২০২৩-এ আইটিইসি প্রাক্তন ছাত্রদের মিট-এ, বিশিষ্ট অতিথিদের পাশাপাশি প্রায় ১০০ জন আইটিইসি প্রাক্তন ছাত্র উপস্থিত ছিলেন। সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের মধ্য দিয়ে অনুষ্ঠানের সমাপ্তি ঘটায়। ভারতীয় হাইকমিশনের সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে একথা জানানো হয়েছে।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published.

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

আপলোডকারীর তথ্য
ট্যাগস :

ভারতীয় হাই কমিশনের উদ্যোগে আইটিইসি অ্যালামনাই মিট ২০২৩

আপডেট সময় : ০৬:৩৯:০৯ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ৯ মার্চ ২০২৩

আইটিইসি বাংলাদেশসহ ১৬০টিরও বেশি দেশ থেকে ১৬০,০০০ এরও বেশি অংশগ্রহণকারীদের প্রশিক্ষণ দেওয়া হয়েছে। এই কর্মসূচিটি সক্ষমতা ও দক্ষতা বৃদ্ধি এবং দুই দেশের মধ্যে সহযোগিতা বৃদ্ধিতে সহায়ক ভূমিকা রেখে চলেছে

 

নিজস্ব প্রতিনিধি, ঢাকা

ঢাকায় ভারতীয় হাই কমিশন ইন্ডিয়ান টেকনিক্যাল অ্যান্ড ইকোনমিক কো-অপারেশন প্রোগ্রাম (আইপিইসি) প্রাক্তন ছাত্র-সমাবেশের আয়োজন করে। অনুষ্ঠানে হাইকমিশনার প্রণয় ভার্মা বাংলাদেশের বিভিন্ন ক্ষেত্রে গুরুত্বপূর্ণ পদে আইটিইসি প্রাক্তন ছাত্ররা অধিষ্ঠিত হওয়ায় আন্তরিক অভিনন্দন জানিয়েছেন।

আইইটিসি হচ্ছে ভারত সরকারের একটি ফ্ল্যাগশিপ প্রোগ্রাম, যার লক্ষ্য উন্নয়নশীল দেশগুলির সাথে ভারতের দক্ষতা এবং জ্ঞান ভাগ করে নেওয়া।

প্রতিষ্ঠার পর থেকে, আইটিইসি বাংলাদেশসহ ১৬০টিরও বেশি দেশ থেকে ১৬০,০০০ এরও বেশি অংশগ্রহণকারীদের প্রশিক্ষণ দেওয়া হয়েছে। এই কর্মসূচিটি সক্ষমতা ও দক্ষতা বৃদ্ধি এবং দুই দেশের মধ্যে সহযোগিতা বৃদ্ধিতে সহায়ক ভূমিকা রেখে চলেছে।

এখনও পর্যন্ত বাংলাদেশের ৪,৫০০ টিরও বেশি তরুণ পেশাদার ভারতীয় প্রিমিয়ার প্রতিষ্ঠানে বিভিন্ন আইটিইসি প্রোগ্রামের অধীনে কোর্স সম্পন্ন করেছে। পাবলিক পলিসির কোর্স থেকে শুরু করে বিশেষায়িত কৃষি এবং শিল্প ডোমেন থেকে নতুন শক্তি এবং আধুনিক প্রযুক্তি পর্যন্ত বিস্তৃত। শুধু তাই নয়, বাংলাদেশ সরকারের সুনির্দিষ্ট অনুরোধে দর্জি তৈরি কোর্সও পরিচালিত হয়েছে।

ভারতের ভোপালে জাতীয় বিচার বিভাগীয় একাডেমিতে বাংলাদেশের বিচারক এবং বিচার বিভাগীয় কর্মকর্তাদের ৪টি ব্যাচের বিশেষ প্রশিক্ষণ প্রোগ্রামের প্রস্তাব দেওয়া হয়েছে। যা কিনা ২০২২-২৩ সময়কালীন শেষ হবার কথা।

একইভাবে মিড-ক্যারিয়ার ট্রেনিং প্রোগ্রামের আয়োজন করা হয়েছে, যেখানে বাংলাদেশী সিভিল সার্ভেন্টদের মুসৌরিতে অবস্থিত ভারতের ন্যাশনাল সেন্টার ফর গুড গভর্নেন্সে প্রশিক্ষণ দেওয়া হয়েছে। অধিকন্তু, ৫৬ জন বাংলাদেশী অংশগ্রহণকারী বিভিন্ন ক্ষেত্রের (বেসরকারি খাত সহ) সারা বিশ্ব থেকে প্রার্থীদের সাথে প্রশিক্ষণ কর্মসূচি গ্রহণ করেছে, যেখানে ৬৭ জন ২০২২-২৩ সালে বাংলাদেশে ই-আইটইসি প্রোগ্রাম থেকে উপকৃত হয়েছে।

২ শে মার্চ ২০২৩-এ আইটিইসি অ্যালামনাই মিট চলাকালীন, ভারতের হাইকমিশন বাংলাদেশের সমস্ত আইটিইসি অ্যালামনাইদের জন্য একটি প্ল্যাটফর্ম হিসাবে বাংলাদেশে একটি আইটিইসি অ্যালামনাই অ্যাসোসিয়েশন (আইএএবি) গঠনের ঘোষণা দেয়।

আইএএবি ও আইটিইসি প্রাক্তন ছাত্রদের সংযুক্ত থাকার এবং তাদের অভিজ্ঞতা শেয়ার করার জন্য একটি ফোরাম হিসাবে কাজ করবে। এটি প্রাক্তন ছাত্রদের জ্ঞান এবং দক্ষতা ভাগ করে ভারত ও বাংলাদেশ উভয়ের উন্নয়নে অবদান রাখার সুযোগও দেবে। এসোসিয়েশন বাংলাদেশে ভারতীয় হাইকমিশন এবং অন্যান্য স্টেকহোল্ডারদের সাথে প্রশিক্ষণ কর্মসূচি, কর্মশালা এবং অন্যান্য ইভেন্ট আয়োজনের জন্য ঘনিষ্ঠভাবে কাজ করবে।

বাংলাদেশে আইটিইসির সমস্ত প্রাক্তন ছাত্রদের অ্যাসোসিয়েশনে যোগদান এবং এর কার্যক্রমে অংশগ্রহণ করার জন্য অনুরোধ করা হয়েছিল। ২রা মার্চ, ২০২৩-এ আইটিইসি প্রাক্তন ছাত্রদের মিট-এ, বিশিষ্ট অতিথিদের পাশাপাশি প্রায় ১০০ জন আইটিইসি প্রাক্তন ছাত্র উপস্থিত ছিলেন। সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের মধ্য দিয়ে অনুষ্ঠানের সমাপ্তি ঘটায়। ভারতীয় হাইকমিশনের সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে একথা জানানো হয়েছে।