ঢাকা ০৭:১৬ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ৩০ মে ২০২৪, ১৬ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম ::
বিক্রয় উন্মোচন করলো প্রপার্টি বেচাকেনার তথ্যভিত্তিক ওয়েবসাইট ‘প্রপার্টি গাইড বাংলাদেশ শীর্ষস্থান হারালেন সাকিব, র‌্যাংকিংয়ে হৃদয়-তানজিদ-মুস্তাফিজের উন্নতি ত্বক ও চুলের যত্নে নিম পাতার ব্যবহার এপেক্সে নারী-পুরুষ নিয়োগ, কর্মস্থল ঢাকা আড়ংয়ে নারী-পুরুষ নিয়োগ, কর্মস্থল ঢাকা রোহিঙ্গাদের জন্য বিশ্বব্যাংক ৭০০ মিলিয়ন ডলার দিচ্ছে দক্ষিণ কোরিয়ায় ‘মলমূত্র’ বহনকারী বেলুন পাঠাচ্ছে উত্তর কোরিয়া উপজেলা পরিষদ নির্বাচন: তৃতীয় ধাপে বিজয়ী যারা প্রধানমন্ত্রী আগামীকাল রেমালে ক্ষতিগ্রস্ত পটুয়াখালীর কলাপাড়া পরিদর্শন করবেন বাংলাদেশি ব্যবসায়ীর বিদেশে বিনোয়োগের ৭০% ভারতে, কেন্দ্রীয় ব্যাংকের তথ্য

বাংলাদেশের স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী উদযাপন ও বঙ্গবন্ধুর স্বাধীনতা ঘোষণার নিয়ে মার্কিন কংগ্রেসে প্রস্তাব তুলে ধরা হয়েছে

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ১০:১৬:২০ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ২০ মার্চ ২০২১ ১৮১ বার পড়া হয়েছে
ভয়েস একাত্তর অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

বাংলাদেশের স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী ও জাতির পিতার জন্মশতবার্ষিকী উপলক্ষ্যে বাংলাদেশের মানুষকে অভিনন্দন জানিয়ে এবং শেখ হাসিনার নেতৃত্বে ‘বাংলাদেশ গোটা বিশ্বের সামনে উন্নয়নের রোল মডেলে পরিণত হয়েছে’ বলে জর্জিয়া স্টেট পার্লামেন্ট এবং নিউজার্সি স্টেট পার্লামেন্টে প্রস্তাব পাশ হয়।

 

ভয়েস ডিজিটাল ডেস্ক

বাংলাদেশের স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী উদযাপন ও বঙ্গবন্ধুর স্বাধীনতা ঘোষণার নিয়ে মার্কিন কংগ্রেসে প্রস্তাব তুলে ধরা হয়েছে। বাংলাদেশের স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী উদযাপন উপলক্ষ্যে মার্কিন কংগ্রেসের নিম্নকক্ষ প্রতিনিধি পরিষদে এই প্রস্তাব উত্থাপন করা হয়েছে। নিউ ইয়র্কের ডেমোক্র্যাট কংগ্রেস ওম্যান আলেক্সান্দ্রিয়া ওকাসিয়ো-কর্তেজ মঙ্গলবার ‘বাংলাদেশের স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী উদযাপন’ (কোমেমর্যাটিং দ্য ফিফটিয়েথ অ্যানিভার্সারি অব বাংলাদেশ ইন্ডিপেন্ডেন্স) শীর্ষক প্রস্তাবটি উত্থাপন করেন। ওয়াশিংটন ডিসিস্থ বাংলাদেশ দূতাবাসের বার্তায় শুক্রবার এ তথ্য জানিয়েছে।

দূতাবাসের বার্তায় বলা হয়েছে, ১১৭তম কংগ্রেসের প্রথম অধিবেশনে প্রস্তাবটি পেশ করেন কংগ্রেসওম্যান কর্তেজ। এই প্রস্তাবে সমর্থন করেন প্রতিনিধি পরিষদের পররাষ্ট্র বিষয়ক কমিটির চেয়ারম্যান কংগ্রেসম্যান গ্রেগরি ডব্লিউ মিকস, মিশিগানের কংগ্রেসওম্যান রাশিদা তাইয়্যিব ও ক্যালিফোর্নিয়ার কংগ্রেসম্যান জিমি গোমেজ। প্রস্তাবটি প্রতিনিধি পরিষদের পররাষ্ট্র বিষয়ক কমিটির কাছে পাঠানো হয়েছে।

প্রস্তাবে স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী উদযাপনে বাংলাদেশিদের অভিনন্দন জানানো হয়েছে। বাংলাদেশের স্বাধীনতার জন্য আত্মত্যাগী বীর মুক্তিযোদ্ধাদের সাহসিকতার বিশেষ প্রশংসার পাশাপাশি গণতন্ত্রের জন্য যারা জীবন বিলিয়ে দিয়েছেন, তাদেরও স্মরণ করা হয়েছে। একই সঙ্গে বিপুল সংখ্যক রোহিঙ্গাকে আশ্রয় দেওয়ায় বাংলাদেশের প্রশংসা করা হয়েছে। ১৯৭১ সালের ২৬ মার্চ বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের স্বাধীনতার ঘোষণা দেওয়ার কথা তুলে ধরা হয়েছে প্রস্তাবে।

এছাড়া ১৯৭২ সালের ১৪ ফেব্রুয়ারি সিনেটর এডওয়ার্ড কেনেডির বক্তৃতার উদ্ধৃতি দেওয়া হয়েছে। প্রসঙ্গত, এর আগে বাংলাদেশের স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী ও জাতির পিতার জন্মশতবার্ষিকী উপলক্ষ্যে বাংলাদেশের মানুষকে অভিনন্দন জানিয়ে এবং শেখ হাসিনার নেতৃত্বে ‘বাংলাদেশ গোটা বিশ্বের সামনে উন্নয়নের রোল মডেলে পরিণত হয়েছে’ বলে জর্জিয়া স্টেট পার্লামেন্ট এবং নিউজার্সি স্টেট পার্লামেন্টে প্রস্তাব পাশ হয়।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published.

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

আপলোডকারীর তথ্য
ট্যাগস :

বাংলাদেশের স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী উদযাপন ও বঙ্গবন্ধুর স্বাধীনতা ঘোষণার নিয়ে মার্কিন কংগ্রেসে প্রস্তাব তুলে ধরা হয়েছে

আপডেট সময় : ১০:১৬:২০ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ২০ মার্চ ২০২১

বাংলাদেশের স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী ও জাতির পিতার জন্মশতবার্ষিকী উপলক্ষ্যে বাংলাদেশের মানুষকে অভিনন্দন জানিয়ে এবং শেখ হাসিনার নেতৃত্বে ‘বাংলাদেশ গোটা বিশ্বের সামনে উন্নয়নের রোল মডেলে পরিণত হয়েছে’ বলে জর্জিয়া স্টেট পার্লামেন্ট এবং নিউজার্সি স্টেট পার্লামেন্টে প্রস্তাব পাশ হয়।

 

ভয়েস ডিজিটাল ডেস্ক

বাংলাদেশের স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী উদযাপন ও বঙ্গবন্ধুর স্বাধীনতা ঘোষণার নিয়ে মার্কিন কংগ্রেসে প্রস্তাব তুলে ধরা হয়েছে। বাংলাদেশের স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী উদযাপন উপলক্ষ্যে মার্কিন কংগ্রেসের নিম্নকক্ষ প্রতিনিধি পরিষদে এই প্রস্তাব উত্থাপন করা হয়েছে। নিউ ইয়র্কের ডেমোক্র্যাট কংগ্রেস ওম্যান আলেক্সান্দ্রিয়া ওকাসিয়ো-কর্তেজ মঙ্গলবার ‘বাংলাদেশের স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী উদযাপন’ (কোমেমর্যাটিং দ্য ফিফটিয়েথ অ্যানিভার্সারি অব বাংলাদেশ ইন্ডিপেন্ডেন্স) শীর্ষক প্রস্তাবটি উত্থাপন করেন। ওয়াশিংটন ডিসিস্থ বাংলাদেশ দূতাবাসের বার্তায় শুক্রবার এ তথ্য জানিয়েছে।

দূতাবাসের বার্তায় বলা হয়েছে, ১১৭তম কংগ্রেসের প্রথম অধিবেশনে প্রস্তাবটি পেশ করেন কংগ্রেসওম্যান কর্তেজ। এই প্রস্তাবে সমর্থন করেন প্রতিনিধি পরিষদের পররাষ্ট্র বিষয়ক কমিটির চেয়ারম্যান কংগ্রেসম্যান গ্রেগরি ডব্লিউ মিকস, মিশিগানের কংগ্রেসওম্যান রাশিদা তাইয়্যিব ও ক্যালিফোর্নিয়ার কংগ্রেসম্যান জিমি গোমেজ। প্রস্তাবটি প্রতিনিধি পরিষদের পররাষ্ট্র বিষয়ক কমিটির কাছে পাঠানো হয়েছে।

প্রস্তাবে স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী উদযাপনে বাংলাদেশিদের অভিনন্দন জানানো হয়েছে। বাংলাদেশের স্বাধীনতার জন্য আত্মত্যাগী বীর মুক্তিযোদ্ধাদের সাহসিকতার বিশেষ প্রশংসার পাশাপাশি গণতন্ত্রের জন্য যারা জীবন বিলিয়ে দিয়েছেন, তাদেরও স্মরণ করা হয়েছে। একই সঙ্গে বিপুল সংখ্যক রোহিঙ্গাকে আশ্রয় দেওয়ায় বাংলাদেশের প্রশংসা করা হয়েছে। ১৯৭১ সালের ২৬ মার্চ বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের স্বাধীনতার ঘোষণা দেওয়ার কথা তুলে ধরা হয়েছে প্রস্তাবে।

এছাড়া ১৯৭২ সালের ১৪ ফেব্রুয়ারি সিনেটর এডওয়ার্ড কেনেডির বক্তৃতার উদ্ধৃতি দেওয়া হয়েছে। প্রসঙ্গত, এর আগে বাংলাদেশের স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী ও জাতির পিতার জন্মশতবার্ষিকী উপলক্ষ্যে বাংলাদেশের মানুষকে অভিনন্দন জানিয়ে এবং শেখ হাসিনার নেতৃত্বে ‘বাংলাদেশ গোটা বিশ্বের সামনে উন্নয়নের রোল মডেলে পরিণত হয়েছে’ বলে জর্জিয়া স্টেট পার্লামেন্ট এবং নিউজার্সি স্টেট পার্লামেন্টে প্রস্তাব পাশ হয়।