ঢাকা ০৫:৪৯ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ৩০ মে ২০২৪, ১৫ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম ::
বিক্রয় উন্মোচন করলো প্রপার্টি বেচাকেনার তথ্যভিত্তিক ওয়েবসাইট ‘প্রপার্টি গাইড বাংলাদেশ শীর্ষস্থান হারালেন সাকিব, র‌্যাংকিংয়ে হৃদয়-তানজিদ-মুস্তাফিজের উন্নতি ত্বক ও চুলের যত্নে নিম পাতার ব্যবহার এপেক্সে নারী-পুরুষ নিয়োগ, কর্মস্থল ঢাকা আড়ংয়ে নারী-পুরুষ নিয়োগ, কর্মস্থল ঢাকা রোহিঙ্গাদের জন্য বিশ্বব্যাংক ৭০০ মিলিয়ন ডলার দিচ্ছে দক্ষিণ কোরিয়ায় ‘মলমূত্র’ বহনকারী বেলুন পাঠাচ্ছে উত্তর কোরিয়া উপজেলা পরিষদ নির্বাচন: তৃতীয় ধাপে বিজয়ী যারা প্রধানমন্ত্রী আগামীকাল রেমালে ক্ষতিগ্রস্ত পটুয়াখালীর কলাপাড়া পরিদর্শন করবেন বাংলাদেশি ব্যবসায়ীর বিদেশে বিনোয়োগের ৭০% ভারতে, কেন্দ্রীয় ব্যাংকের তথ্য

৫৬তম আইটেক দিবস উদযাপন করলো ভারতীয় হাই কমিশন

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ১১:৩৪:৪০ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ১৫ সেপ্টেম্বর ২০২০ ৪৯৪ বার পড়া হয়েছে
ভয়েস একাত্তর অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

ভয়েস ডিজিটাল ডেস্ক

মঙ্গলবার ৫৬তম আইটেক দিবস উদযাপন করলো ভারতীয় হাইকমিশন। প্রতিবছর ঢাকাস্থ হাই কমিশন সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান, স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র প্রদর্শন, অভিজ্ঞতা বিনিময় ইত্যাদির মাধ্যমে এই দিবসটি বড় আকারে উদযাপন করে। কিন্তু এই এবারে কোভিড-১৯ মহামারীর কারণে আইটেক দিবস অনলাইন ও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে সীমাবদ্ধ থেকে উদযাপন করা হয়েছে।  ১৯৬৪ সালে ভারতীয় কারিগরি ও অর্থনৈতিক সহযোগিতা কৌশল কাঠামোর আওতায় ভারতের উন্নয়ন সহযোগিতা কর্মসূচির অংশ হিসেবে আইটেক কর্মসূচি প্রচলিত হয় যার মাধ্যমে উন্নয়নশীল দেশগুলোকে ভারতের উন্নয়ন অভিজ্ঞতা প্রদান করা হয়। প্রতি বছর হিসাব, নিরীক্ষা, ব্যবস্থাপনা, এসএমই, গ্রামীণ উন্নয়ন, সংসদীয় বিষয়াবলীর মত বিভিন্ন ক্ষেত্রে প্রশিক্ষণ কোর্সের জন্য ১৬০টি সহযোগী দেশে ১০ হাজারের বেশি প্রশিক্ষণ পর্বের আয়োজন করা হয়। আইটেক সহযোগিতায় বাংলাদেশ আমাদের প্রধানতম এবং গুরুত্বপূর্ণ অংশীদার।
২০০৭ সাল থেকে আইটেক কর্মসূচির অধীনে চার হাজারের বেশি বাংলাদেশী তরুণ পেশাজীবী ভারতে এ ধরনের বিশেষায়িত স্বল্প ও মধ্যমেয়াদী কোর্স সম্পন্ন করেছে। এই প্রশিক্ষণ কর্মসূচিগুলোর মাধ্যমে আমরা বাংলাদেশের মেধাবীদের সাথে আমাদের সেরা বিষয়গুলো ভাগ করে নেয়ার সুযোগ পাই এবং আমরাও এদেশের উন্নয়ন অভিজ্ঞতা থেকে সমানভাবে উপকৃত হই।
২০২০ সালে, বাংলাদেশে কর্মরত স্বাস্থ্যসেবাদানকারী এবং প্রশাসনিক কর্মকর্তাদের জন্য কোভিড-১৯ ব্যবস্থাপনার কৌশল সম্পর্কিত কিছু বিশেষায়িত ই-আইটেক কোর্স আয়োজন করা হয়। ভুবনেশ্বরের এআইআইএমএসের উদ্যোগে বাংলা ভাষায় কোভিড-১৯ বিষয়ক একটি বিশেষ ই-আইটেক কোর্স আয়োজন করা হয়, যেখানে সারা বাংলাদেশ থেকে দেড় শতাধিক প্রশিক্ষণার্থী অংশ নিয়েছিলেন। মুসৌরিতে অবস্থিত ন্যাশনাল সেন্টার ফর গুড গভর্ন্যান্স ‘মহামারীতে সুশাসন অনুশীলন’ বিষয়ে বিভাগীয় ও জেলা পর্যায়ের প্রশাসনিক প্রধানদের জন্য আর একটি অনলাইন প্রশিক্ষণের আয়োজন করে। অল ইন্ডিয়া ইনস্টিটিউট অফ মেডিকেল সায়েন্সেস, রায়পুর স্বাস্থ্যসেবা পেশাদারদের জন্য একটি ই-আইটেক কোর্সের আয়োজন করে, যেখানে বাংলাদেশের ৯০ জনেরও বেশি স্বাস্থ্যসেবাদানকারী অংশ নিয়েছিল। বাংলাদেশে আইটেকের জনপ্রিয়তা বিবেচনায় রেখে, ভারতীয় হাই কমিশন, ঢাকা কোভিড-১৯ পরিস্থিতি স্বাভাবিক হওয়ার পরে আনুষ্ঠানিকভাবে আইটেক দিবস উদযাপনের পরিকল্পনা করছে।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published.

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

আপলোডকারীর তথ্য
ট্যাগস :

৫৬তম আইটেক দিবস উদযাপন করলো ভারতীয় হাই কমিশন

আপডেট সময় : ১১:৩৪:৪০ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ১৫ সেপ্টেম্বর ২০২০

ভয়েস ডিজিটাল ডেস্ক

মঙ্গলবার ৫৬তম আইটেক দিবস উদযাপন করলো ভারতীয় হাইকমিশন। প্রতিবছর ঢাকাস্থ হাই কমিশন সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান, স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র প্রদর্শন, অভিজ্ঞতা বিনিময় ইত্যাদির মাধ্যমে এই দিবসটি বড় আকারে উদযাপন করে। কিন্তু এই এবারে কোভিড-১৯ মহামারীর কারণে আইটেক দিবস অনলাইন ও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে সীমাবদ্ধ থেকে উদযাপন করা হয়েছে।  ১৯৬৪ সালে ভারতীয় কারিগরি ও অর্থনৈতিক সহযোগিতা কৌশল কাঠামোর আওতায় ভারতের উন্নয়ন সহযোগিতা কর্মসূচির অংশ হিসেবে আইটেক কর্মসূচি প্রচলিত হয় যার মাধ্যমে উন্নয়নশীল দেশগুলোকে ভারতের উন্নয়ন অভিজ্ঞতা প্রদান করা হয়। প্রতি বছর হিসাব, নিরীক্ষা, ব্যবস্থাপনা, এসএমই, গ্রামীণ উন্নয়ন, সংসদীয় বিষয়াবলীর মত বিভিন্ন ক্ষেত্রে প্রশিক্ষণ কোর্সের জন্য ১৬০টি সহযোগী দেশে ১০ হাজারের বেশি প্রশিক্ষণ পর্বের আয়োজন করা হয়। আইটেক সহযোগিতায় বাংলাদেশ আমাদের প্রধানতম এবং গুরুত্বপূর্ণ অংশীদার।
২০০৭ সাল থেকে আইটেক কর্মসূচির অধীনে চার হাজারের বেশি বাংলাদেশী তরুণ পেশাজীবী ভারতে এ ধরনের বিশেষায়িত স্বল্প ও মধ্যমেয়াদী কোর্স সম্পন্ন করেছে। এই প্রশিক্ষণ কর্মসূচিগুলোর মাধ্যমে আমরা বাংলাদেশের মেধাবীদের সাথে আমাদের সেরা বিষয়গুলো ভাগ করে নেয়ার সুযোগ পাই এবং আমরাও এদেশের উন্নয়ন অভিজ্ঞতা থেকে সমানভাবে উপকৃত হই।
২০২০ সালে, বাংলাদেশে কর্মরত স্বাস্থ্যসেবাদানকারী এবং প্রশাসনিক কর্মকর্তাদের জন্য কোভিড-১৯ ব্যবস্থাপনার কৌশল সম্পর্কিত কিছু বিশেষায়িত ই-আইটেক কোর্স আয়োজন করা হয়। ভুবনেশ্বরের এআইআইএমএসের উদ্যোগে বাংলা ভাষায় কোভিড-১৯ বিষয়ক একটি বিশেষ ই-আইটেক কোর্স আয়োজন করা হয়, যেখানে সারা বাংলাদেশ থেকে দেড় শতাধিক প্রশিক্ষণার্থী অংশ নিয়েছিলেন। মুসৌরিতে অবস্থিত ন্যাশনাল সেন্টার ফর গুড গভর্ন্যান্স ‘মহামারীতে সুশাসন অনুশীলন’ বিষয়ে বিভাগীয় ও জেলা পর্যায়ের প্রশাসনিক প্রধানদের জন্য আর একটি অনলাইন প্রশিক্ষণের আয়োজন করে। অল ইন্ডিয়া ইনস্টিটিউট অফ মেডিকেল সায়েন্সেস, রায়পুর স্বাস্থ্যসেবা পেশাদারদের জন্য একটি ই-আইটেক কোর্সের আয়োজন করে, যেখানে বাংলাদেশের ৯০ জনেরও বেশি স্বাস্থ্যসেবাদানকারী অংশ নিয়েছিল। বাংলাদেশে আইটেকের জনপ্রিয়তা বিবেচনায় রেখে, ভারতীয় হাই কমিশন, ঢাকা কোভিড-১৯ পরিস্থিতি স্বাভাবিক হওয়ার পরে আনুষ্ঠানিকভাবে আইটেক দিবস উদযাপনের পরিকল্পনা করছে।