ঢাকা ০৬:৩৮ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ৩০ মে ২০২৪, ১৬ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম ::
বিক্রয় উন্মোচন করলো প্রপার্টি বেচাকেনার তথ্যভিত্তিক ওয়েবসাইট ‘প্রপার্টি গাইড বাংলাদেশ শীর্ষস্থান হারালেন সাকিব, র‌্যাংকিংয়ে হৃদয়-তানজিদ-মুস্তাফিজের উন্নতি ত্বক ও চুলের যত্নে নিম পাতার ব্যবহার এপেক্সে নারী-পুরুষ নিয়োগ, কর্মস্থল ঢাকা আড়ংয়ে নারী-পুরুষ নিয়োগ, কর্মস্থল ঢাকা রোহিঙ্গাদের জন্য বিশ্বব্যাংক ৭০০ মিলিয়ন ডলার দিচ্ছে দক্ষিণ কোরিয়ায় ‘মলমূত্র’ বহনকারী বেলুন পাঠাচ্ছে উত্তর কোরিয়া উপজেলা পরিষদ নির্বাচন: তৃতীয় ধাপে বিজয়ী যারা প্রধানমন্ত্রী আগামীকাল রেমালে ক্ষতিগ্রস্ত পটুয়াখালীর কলাপাড়া পরিদর্শন করবেন বাংলাদেশি ব্যবসায়ীর বিদেশে বিনোয়োগের ৭০% ভারতে, কেন্দ্রীয় ব্যাংকের তথ্য

ভাসানচরের রোহিঙ্গাদের পাচ্ছে সিঙ্গপুরের উপহার সামগ্রী

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ০৫:২৮:১৬ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ২৯ জানুয়ারী ২০২১ ২৪৩ বার পড়া হয়েছে
ভয়েস একাত্তর অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

ভয়েস রিপোর্ট, ঢাকা

বাংলাদেশের মন্ত্রী ড. এ. কে. আব্দুল মোমেন বলেন, সিঙ্গাপুরের মোহাম্মাদ আব্দুল্লাহ আল হাবশি ভাসানচরের রোহিঙ্গাদের জন্য উপহার সামগ্রী পাঠিয়েছেন। সিঙ্গাপুরের বিদেশ মন্ত্রীর সঙ্গে টেলিফোনে আলাপকালে এ বিষয়ে অবহিত করেন। সিলেট মহানগরীর দরগা গেইট এলাকায় হোটেল স্টার প্যাসিফিকে উন্নয়ন অগ্রযাত্রা শিরোনামে সিলেটের উন্নয়ন বিষয়ক মতবিনিময় সভায় অংশ নিয়ে বিদেশ মন্ত্রী এসব কথা বলেন।

এসময় ড. মোমেন বলেন, রোহিঙ্গাদের ভাসানচরে নেওয়ার পর সিঙ্গাপুর তাদের জন্য সাহায্যের হাত বাড়িয়েছে। শুক্রবার ভাসানচরে আরও ৩ হাজার রোহিঙ্গা গিয়েছে এবং ১ লক্ষ রোহিঙ্গা সেখানে বসবাস করার মতো উপযুক্ত। সরকার পর্যায়ক্রমে ১লাখ রোহিঙ্গাকে ভাসানচরে নেওয়া পরিকল্পনা রয়েছে। রোহিঙ্গারা সেখানে উন্নত পরিবেশে বসবাস করতে পারবে।

 


এসময় ড. মোমেন বলেন, সিলেট শহর ঘিরে যেসব নদীর রয়েছে, তার তীর বিদেশের মতো নান্দনিক করা হবে। এ বিষয়ে সিলেটের শহরবাসী সাহায্য করছেন। তিনি শহরবাসীকে ধন্যবাদ জানিয়েছেন বলেন, রিংরোড সম্পন্ন হলে শহরের যানজট কমে যাবে। ড. মোমেন আরও জানান, সিলেটে একটি দৃষ্টিনন্দন স্বাধীনতা টাওয়ার নির্মাণ করা হবে। বর্তমানে দেশব্যাপী যে উন্নয়ন চলমান রয়েছে, তা হচ্ছে শেখ হাসিনারের হাত ধরেই। মুজিববর্ষ ও স্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তী উপলক্ষে সিলেট একটি বিশেষ কর্মসূচি হবে বলে প্রত্যাশা করেন ড. মোমেন ।

 


বিদেশমন্ত্রী আরও বলেন, সকল প্রকারের সামাজিক উন্নয়নসহ দেশের দারিদ্র্য কমেছে। উন্নয়নের মহাসড়কের জন্য ধন্যবাদ দিতে হবে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে। এ সময় সিলেট সিটি কর্পোরেশনের বিভিন্ন উন্নয়ন কার্যক্রম ও উন্নয়ন পরিকল্পনার তথ্য চিত্র ও ভিডিও চিত্র প্রদর্শন করা হয়। সিলেট সিটি কর্পোরেশনের মেয়র আরিফুল হক চৌধুরীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত এ মতবিনিময় সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তৃতা করেন স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রী মোঃ তাজুল ইসলাম। বক্তব্য রাখেন, সিলেট মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি বীরমুক্তিযোদ্ধা মাসুক উদ্দিন আহমেদ ও স্থানীয় সরকার বিভাগের সিনিয়র সচিব হেলালুদ্দীন আহমদ।

এর আগে বিদেশ মন্ত্রী ও স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রী যৌথভাবে সিলেট জেলা পরিষদ সুপার মার্কেট উদ্বোধন করেন। এ সময় সিলেট জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি অ্যাডভোকেট লুৎফুর রহমান উপস্থিত ছিলেন। এছাড়া উভয় মন্ত্রী সিলেটের কদমতলী কেন্দ্রীয় বাস টার্মিনালসহ স্থানীয় সরকারের কয়েকটি উন্নয়ন কাজ পরিদর্শন করেন।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published.

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

আপলোডকারীর তথ্য
ট্যাগস :

ভাসানচরের রোহিঙ্গাদের পাচ্ছে সিঙ্গপুরের উপহার সামগ্রী

আপডেট সময় : ০৫:২৮:১৬ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ২৯ জানুয়ারী ২০২১

ভয়েস রিপোর্ট, ঢাকা

বাংলাদেশের মন্ত্রী ড. এ. কে. আব্দুল মোমেন বলেন, সিঙ্গাপুরের মোহাম্মাদ আব্দুল্লাহ আল হাবশি ভাসানচরের রোহিঙ্গাদের জন্য উপহার সামগ্রী পাঠিয়েছেন। সিঙ্গাপুরের বিদেশ মন্ত্রীর সঙ্গে টেলিফোনে আলাপকালে এ বিষয়ে অবহিত করেন। সিলেট মহানগরীর দরগা গেইট এলাকায় হোটেল স্টার প্যাসিফিকে উন্নয়ন অগ্রযাত্রা শিরোনামে সিলেটের উন্নয়ন বিষয়ক মতবিনিময় সভায় অংশ নিয়ে বিদেশ মন্ত্রী এসব কথা বলেন।

এসময় ড. মোমেন বলেন, রোহিঙ্গাদের ভাসানচরে নেওয়ার পর সিঙ্গাপুর তাদের জন্য সাহায্যের হাত বাড়িয়েছে। শুক্রবার ভাসানচরে আরও ৩ হাজার রোহিঙ্গা গিয়েছে এবং ১ লক্ষ রোহিঙ্গা সেখানে বসবাস করার মতো উপযুক্ত। সরকার পর্যায়ক্রমে ১লাখ রোহিঙ্গাকে ভাসানচরে নেওয়া পরিকল্পনা রয়েছে। রোহিঙ্গারা সেখানে উন্নত পরিবেশে বসবাস করতে পারবে।

 


এসময় ড. মোমেন বলেন, সিলেট শহর ঘিরে যেসব নদীর রয়েছে, তার তীর বিদেশের মতো নান্দনিক করা হবে। এ বিষয়ে সিলেটের শহরবাসী সাহায্য করছেন। তিনি শহরবাসীকে ধন্যবাদ জানিয়েছেন বলেন, রিংরোড সম্পন্ন হলে শহরের যানজট কমে যাবে। ড. মোমেন আরও জানান, সিলেটে একটি দৃষ্টিনন্দন স্বাধীনতা টাওয়ার নির্মাণ করা হবে। বর্তমানে দেশব্যাপী যে উন্নয়ন চলমান রয়েছে, তা হচ্ছে শেখ হাসিনারের হাত ধরেই। মুজিববর্ষ ও স্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তী উপলক্ষে সিলেট একটি বিশেষ কর্মসূচি হবে বলে প্রত্যাশা করেন ড. মোমেন ।

 


বিদেশমন্ত্রী আরও বলেন, সকল প্রকারের সামাজিক উন্নয়নসহ দেশের দারিদ্র্য কমেছে। উন্নয়নের মহাসড়কের জন্য ধন্যবাদ দিতে হবে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে। এ সময় সিলেট সিটি কর্পোরেশনের বিভিন্ন উন্নয়ন কার্যক্রম ও উন্নয়ন পরিকল্পনার তথ্য চিত্র ও ভিডিও চিত্র প্রদর্শন করা হয়। সিলেট সিটি কর্পোরেশনের মেয়র আরিফুল হক চৌধুরীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত এ মতবিনিময় সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তৃতা করেন স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রী মোঃ তাজুল ইসলাম। বক্তব্য রাখেন, সিলেট মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি বীরমুক্তিযোদ্ধা মাসুক উদ্দিন আহমেদ ও স্থানীয় সরকার বিভাগের সিনিয়র সচিব হেলালুদ্দীন আহমদ।

এর আগে বিদেশ মন্ত্রী ও স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রী যৌথভাবে সিলেট জেলা পরিষদ সুপার মার্কেট উদ্বোধন করেন। এ সময় সিলেট জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি অ্যাডভোকেট লুৎফুর রহমান উপস্থিত ছিলেন। এছাড়া উভয় মন্ত্রী সিলেটের কদমতলী কেন্দ্রীয় বাস টার্মিনালসহ স্থানীয় সরকারের কয়েকটি উন্নয়ন কাজ পরিদর্শন করেন।