ঢাকা ০৫:২৯ অপরাহ্ন, রবিবার, ১৪ এপ্রিল ২০২৪, ১ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

বিদেশে উইঘুরদের ওপর নজরদারি চীনা হ্যাকারদের!

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ১১:১৭:৫৫ অপরাহ্ন, সোমবার, ২৯ মার্চ ২০২১ ১৬৫ বার পড়া হয়েছে
ভয়েস একাত্তর অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

ভয়েস ডিজিটাল ডেস্ক, ঢাকা

ভুয়া ফেসবুক অ্যাকাউন্ট ও নজরদারি সফটওয়্যারের মাধ্যমে চীনা হ্যাকাররা বিদেশে উইঘুর নেতাদের ওপর চরবৃত্তি করছিল। ভুয়া ফেসবুক অ্যাকাউন্ট এবং ওয়েবসাইট বানিয়ে, নজরদারি সফটওয়্যারের সাহায্যে তারা এই কাজ করত। এমনই অভিযোগ ফেসবুকের। আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যমের খবরে এ তথ্য জানা গেছে। 

ফেসবুক জানিয়েছে, বিদেশে বসবাসকারী উইঘুর নেতা ও কর্মী, সাংবাদিক এবং বিক্ষুব্ধদের কম্পিউটার এবং স্মার্ট ফোন হ্যাক করার চেষ্টা করত চীনা হ্যাকাররা। তারা বিষয়টি ধরে ফেলে এবং হ্যাকিং অপারেশনে বাধা দেয়। ওই হ্যাকারদের অ্যাকাউন্ট বন্ধ করে দেয়। প্রায় এক শ’টি অ্যাকাউন্ট বন্ধ করা হয়েছে।

এসব উইঘুর নেতা ও কর্মী অস্ট্রেলিয়া, কানাডা, কাজাখস্তান, সিরিয়া, তুরস্ক ও আমেরিকায় থাকেন। শিনজিয়াং থেকে হ্যাকাররা ৫০০ উইঘুর অ্যাকাউন্ট হ্যাক করার চেষ্টা করেছিল। চীন ১০ লাখের বেশি উইঘুর মুসলিমকে শিবিরে রেখেছে বলে অভিযোগ। জাতিসংঘের মতে, উইঘুরদের ওপর অত্যাচার চালায় চীন। তারা এই অত্যাচার বন্ধের দাবি জানিয়েছে।

কিন্তু চীন এসব অভিযোগ উড়িয়ে দিয়ে বলেছে, উইঘুরদের প্রশিক্ষণ দেওয়া হচ্ছে। বিভিন্ন দেশে ছড়িয়ে থাকা উইঘুররা চীনের নীতির বিরুদ্ধে আওয়াজ তুলেছেন। তারা অবিলম্বে উইঘুরদের ওপর অত্যাচার বন্ধ করার দাবি করেছেন। তাতে চীনের ক্ষোভ বেড়েছে।
সূত্র : ডয়চে ভেলে বাংলা

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published.

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

আপলোডকারীর তথ্য
ট্যাগস :

বিদেশে উইঘুরদের ওপর নজরদারি চীনা হ্যাকারদের!

আপডেট সময় : ১১:১৭:৫৫ অপরাহ্ন, সোমবার, ২৯ মার্চ ২০২১

ভয়েস ডিজিটাল ডেস্ক, ঢাকা

ভুয়া ফেসবুক অ্যাকাউন্ট ও নজরদারি সফটওয়্যারের মাধ্যমে চীনা হ্যাকাররা বিদেশে উইঘুর নেতাদের ওপর চরবৃত্তি করছিল। ভুয়া ফেসবুক অ্যাকাউন্ট এবং ওয়েবসাইট বানিয়ে, নজরদারি সফটওয়্যারের সাহায্যে তারা এই কাজ করত। এমনই অভিযোগ ফেসবুকের। আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যমের খবরে এ তথ্য জানা গেছে। 

ফেসবুক জানিয়েছে, বিদেশে বসবাসকারী উইঘুর নেতা ও কর্মী, সাংবাদিক এবং বিক্ষুব্ধদের কম্পিউটার এবং স্মার্ট ফোন হ্যাক করার চেষ্টা করত চীনা হ্যাকাররা। তারা বিষয়টি ধরে ফেলে এবং হ্যাকিং অপারেশনে বাধা দেয়। ওই হ্যাকারদের অ্যাকাউন্ট বন্ধ করে দেয়। প্রায় এক শ’টি অ্যাকাউন্ট বন্ধ করা হয়েছে।

এসব উইঘুর নেতা ও কর্মী অস্ট্রেলিয়া, কানাডা, কাজাখস্তান, সিরিয়া, তুরস্ক ও আমেরিকায় থাকেন। শিনজিয়াং থেকে হ্যাকাররা ৫০০ উইঘুর অ্যাকাউন্ট হ্যাক করার চেষ্টা করেছিল। চীন ১০ লাখের বেশি উইঘুর মুসলিমকে শিবিরে রেখেছে বলে অভিযোগ। জাতিসংঘের মতে, উইঘুরদের ওপর অত্যাচার চালায় চীন। তারা এই অত্যাচার বন্ধের দাবি জানিয়েছে।

কিন্তু চীন এসব অভিযোগ উড়িয়ে দিয়ে বলেছে, উইঘুরদের প্রশিক্ষণ দেওয়া হচ্ছে। বিভিন্ন দেশে ছড়িয়ে থাকা উইঘুররা চীনের নীতির বিরুদ্ধে আওয়াজ তুলেছেন। তারা অবিলম্বে উইঘুরদের ওপর অত্যাচার বন্ধ করার দাবি করেছেন। তাতে চীনের ক্ষোভ বেড়েছে।
সূত্র : ডয়চে ভেলে বাংলা