বুধবার, ২০ অক্টোবর ২০২১, ১১:০৮ অপরাহ্ন

প্রধানমন্ত্রীর সুযোগ্য ও গতিশীল নেতৃত্বে জাতিরপিতার স্বপ্ন বাস্তবায়ন করে চলেছেন: সেনাবাহিনী প্রধান

ভয়েস ডিজিটাল ডেস্ক
  • Update Time : সোমবার, ১১ অক্টোবর, ২০২১
  • ৫৬ Time View

অনুষ্ঠানে বক্তব্য দিচ্ছেন সেনাবাহিনী প্রধান জেনারেল এস এম শফিউদ্দিন আহমেদ।
ছবি: আইএসপিআর

চট্টগ্রামে আর্মি এভিয়েশন ফরওয়ার্ড বেসের উদ্বোধন

বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর আর্মি এভিয়েশন ফরওয়ার্ড বেস, চট্টগ্রাম এর উদ্বোধন এবং ২টি বেল ৪০৭ জিএক্সআই হেলিকপ্টার এর অন্তর্ভূক্তি অনুষ্ঠান সোমবার চট্টগ্রাম শাহ আমানত বিমানবন্দরে অনুষ্ঠিত হয়। এতে প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন সেনাবাহিনী প্রধান জেনারেল এস এম শফিউদ্দিন আহমেদ। চট্টগ্রামে ফরোয়ার্ড বেস স্থাপনের মাধ্যমে পার্বত্য

চট্টগ্রাম এবং কক্সবাজার অঞ্চলে বিমান সহযোগিতা প্রদান পূর্বের চেয়ে সহজ হবে এবং এতে ব্যয় অনেক কমে আসবে। আন্ত:বাহিনী জনসংযোগ পরিদপ্তর (আইএসপিআর) এক সংবাদ বার্তায় একথা জানায়।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে সেনাবাহিনী প্রধান জেনারেল এস এম শফিউদ্দিন আহমেদ বলেন, আমাদের জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ‘সোনার বাংলা’ গড়ে তোলার পাশাপাশি একটি আধুনিক ও যুগোপযুগী সেনাবাহিনী গঠনের স্বপ্ন দেখেছিলেন। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা তাঁর সুযোগ্য ও গতিশীল নেতৃত্ব এবং আন্তরিকতায় জাতির পিতার স্বপ্ন বাস্তবায়ন করে চলেছেন।

সেনা প্রধান বলেন, প্রধানমন্ত্রীর ঐকান্তিক উদ্যোগের কারনেই শাহ আমানত বিমানবন্দর, চট্টগ্রামে আর্মি এভিয়েশন ফরওয়ার্ড বেস নির্মান এবং অত্যাধুনিক প্রযুক্তি সম্পন্ন ২টি বেল ৪০৭

জিএক্সআই হেলিকপ্টার আর্মি এভিয়েশন গ্রুপে বহরে অন্তর্ভূক্তি সম্ভব হয়েছে। এই মহতী উদ্যোগের জন্য প্রধানমন্ত্রী’র প্রতি আন্তরিক কৃতজ্ঞতা ও ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন সেনাপ্রাধান

জেনারেল জেনারেল এস এম শফিউদ্দিন আহমেদ। তিনি বলেন, চট্টগ্রামে বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর আর্মি এভিয়েশন বেস উদ্বোধনের মাধ্যমে আর্মি এভিয়েশন গ্রুপের একটি গৌরবময় ও ঐতিহাসিক ঘটনার সঙ্গে সম্পৃক্ত হতে পেরে আমি অন্যন্ত আনন্দিত ও গর্বিত বোধ

করছি। বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকী ও স্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তী উদযাপনের এই তাৎপর্যবহ বছরে আর্মি এভিয়েশন বেসের এই উদ্বোধন বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর জন্যও একটি বিশেষ তাৎপর্যপূর্ণ অধ্যায়।

 

আর্মি এভিয়েশন গ্রুপ বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর একটি বিশেষায়িত প্রতিষ্ঠান। এটির মূল লক্ষ্য সেনাবাহিনীর আভিযানিক কার্যক্রমে প্রত্যক্ষভাবে বিমান সহায়তা প্রদান করা। দেশের প্রত্যন্ত অঞ্চলে নিয়োজিত সেনাসদস্যদের সহায়তা প্রদানের লক্ষ্যে বাংলাদেশ সরকারের অনুমোদন

সাপেক্ষে লালমনিরহাট ও চট্টগ্রামে পৃথক দুটি এভিয়েশন বেস স্থাপনের কার্যক্রম শুরু করা হয়। ইতিমধ্যেই ২০২০ সালের ৩ মার্চ লালমনিরহাট সেনানিবাসে আর্মি এভিয়েশন স্কুলের নবনির্মিত হ্যাঙ্গার কমপ্লেক্স উদ্বোধন করা হয়েছে।

আধুনিক সেনাবাহিনীর সঙ্গে সামঞ্জস্যতা রেখে আর্মি এভিয়েশনে সংযোজিত হয়েছে আধুনিক হেলিকপ্টার ও সামরিক বিমান। বর্তমানে আর্মি এভিয়েশন গ্রুপের বহরে অত্যাধুনিক বিমান ও হেলিকপ্টার সংযুক্তির ধারাবাহিকতায় আজ যুক্ত হয়েছে ২টি অত্যাধুনিক বেল ৪০৭ জিএক্সআই

 

হেলিকপ্টার। যুক্তরাষ্ট্রের তৈরী অত্যাধুনিক প্রযুক্তির এই ২টি হেলিকপ্টার নবীন বৈমানিকদের প্রশিক্ষণে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করবে। এছাড়া বিভিন্ন আভিযানিক প্রয়োজন যেমন বিমান হতে অনুসন্ধান ও পর্যবেক্ষণ এবং স্কাউট হেলিকপ্টার হিসেবেও এই হেলিকপ্টারগুলো ব্যবহার করা যাবে।

পাশাপাশি এই হেলিকপ্টারগুলোর মাধ্যমে চিকিৎসা সহায়তা, মিশন পরিচালনা ও সীমিত আকারে জরুরী রশদ সরবরাহ করা সম্ভব। আজকের এই অনুষ্ঠানের মাধ্যমে ২টি বেল ৪০৭ জিএক্সআই হেলিকপ্টার আর্মি এভিয়েশন গ্রুপের বহরে অন্তর্ভূক্ত হওয়ায় নিঃসন্দেহে

সেনাবাহিনীর সক্ষমতা বহুলাংশে বৃদ্ধি পাবে। অনুষ্ঠানে ঊর্ধ্বতন সেনা, নৌ ও বিমান বাহিনীর কর্মকর্তা ও সংবাদমাধ্যমকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category
© All rights reserved © 2017 voiceekattor
কারিগরি সহযোগিতায়: সোহাগ রানা
11223