ঢাকা ০৭:০৯ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ৩০ মে ২০২৪, ১৬ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম ::
বিক্রয় উন্মোচন করলো প্রপার্টি বেচাকেনার তথ্যভিত্তিক ওয়েবসাইট ‘প্রপার্টি গাইড বাংলাদেশ শীর্ষস্থান হারালেন সাকিব, র‌্যাংকিংয়ে হৃদয়-তানজিদ-মুস্তাফিজের উন্নতি ত্বক ও চুলের যত্নে নিম পাতার ব্যবহার এপেক্সে নারী-পুরুষ নিয়োগ, কর্মস্থল ঢাকা আড়ংয়ে নারী-পুরুষ নিয়োগ, কর্মস্থল ঢাকা রোহিঙ্গাদের জন্য বিশ্বব্যাংক ৭০০ মিলিয়ন ডলার দিচ্ছে দক্ষিণ কোরিয়ায় ‘মলমূত্র’ বহনকারী বেলুন পাঠাচ্ছে উত্তর কোরিয়া উপজেলা পরিষদ নির্বাচন: তৃতীয় ধাপে বিজয়ী যারা প্রধানমন্ত্রী আগামীকাল রেমালে ক্ষতিগ্রস্ত পটুয়াখালীর কলাপাড়া পরিদর্শন করবেন বাংলাদেশি ব্যবসায়ীর বিদেশে বিনোয়োগের ৭০% ভারতে, কেন্দ্রীয় ব্যাংকের তথ্য

পাকিস্তান কাশ্মীরের যুব সমাজকে সন্ত্রাসবাদে উদ্বুদ্ধ করছে বলে অভিযোগ বিএস রাজু’র

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ০২:৪২:৩৪ অপরাহ্ন, সোমবার, ১৮ জানুয়ারী ২০২১ ২৪৫ বার পড়া হয়েছে
ভয়েস একাত্তর অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

ভয়েস ডিজিটাল ডেস্ক

ভারতের চিনার কর্পস-এর জেনারেল অফিসার কমান্ডার (জিওসি) লেফটেন্যান্ট জেনারেল বিএস রাজু বলেছেন, পাকিস্তান কাশ্মীর উপত্যকা থেকে যুবকদের বিভিন্ন মাধ্যমে সন্ত্রাসবাদের দিকে উদ্বুদ্ধ করছে। এবং তাদের নিয়ন্ত্রণরেখা (এলওসি) পেরিয়ে ভারতে ফেরত পাঠাচ্ছে। রবিবার এএনআই-কে দেওয়া এক বক্তব্যে তিনি এ দাবি করেন।

এএনআই-কে দেওয়া একক বক্তব্যে তিনি আরো বলেন, প্রতিবেশী দেশ থেকে সন্ত্রাসীরা জনবহুল এলাকায় আমাদের সুরক্ষা বাহিনী এবং বেসামরিক নাগরিকদের লক্ষ্য করে হামলা চালাচ্ছে। তারা আশা করছে আমাদের নিরাপত্তাবাহিনী প্রতিক্রিয়া দেখাবে এবং আরো বেশি বেসামরিক মানুষ হতাহতের শিকার হবে।

তিনি বলেন, পাকিস্তান যুব সমাজকে বিভিন্ন উপায়ে সন্ত্রাসবাদের দিকে ঠেলে দেওয়ার ক্ষেত্রে মূল ভূমিকা পালন করছে। তারা অনেক যুবককে পড়াশোনার কথা বলে নিয়ে যাচ্ছে। এদের মধ্যে বাছাইকৃতদের সন্ত্রাসবাদে অনুপ্রেরণা দেওয়া হয়। পরে তাদের প্রশিক্ষণ দিয়ে লাইন অব কন্ট্রোল (এলওসি) পার করে ভারতে পাঠানো হয়। অনুপ্রবেশকারীদের এলওসির পাশাপাশি আন্তর্জাতিক সীমান্তের মধ্য দিয়েও প্রেরণ করা হয়।

এ সব পাকিস্তানি সন্ত্রাসীরা জনবহুল অঞ্চলে উপত্যকার মধ্যে আমাদের সুরক্ষা বাহিনী এবং বেসামরিক নাগরিকদের লক্ষ্য করে হামলা চালায়। তাদের প্রত্যাশা আমারা প্রতিক্রিয়া দেখাব এবং তারা আরো বেশি বেসামরিক মানুষকে হত্যা করতে পারবে। পরে তারা এটিকে আমাদের ভাবমূর্তি নষ্ট করার উদ্দেশ্যে প্রচার হিসাবে ব্যবহার করবে বলেন তিনি।

সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমকে ভুল তথ্য ছড়িয়ে দেওয়ার এবং নতুন নিয়োগকারীদের আকর্ষণ করার জন্য পাকিস্তানের বিরুদ্ধে অভিযোগে রাজু পর্যবেক্ষণ করেছেন যে সন্ত্রাসীরা ওভারগ্রাউন্ড থেকে নিচে থাকা কর্মীদের লক্ষ্যকরে গ্রেনেড বা আগুন নিক্ষেপ করে এবং তাদের সন্ত্রাসবাদীদের বিরুদ্ধে পদক্ষেপ নিতে উৎসাহিত করে। তবে জনগণ পাকিস্তানের নকশা সম্পর্কে অবগত রয়েছে বলে জানান রাজু।

সূত্র: এএনআই।

 

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published.

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

আপলোডকারীর তথ্য
ট্যাগস :

পাকিস্তান কাশ্মীরের যুব সমাজকে সন্ত্রাসবাদে উদ্বুদ্ধ করছে বলে অভিযোগ বিএস রাজু’র

আপডেট সময় : ০২:৪২:৩৪ অপরাহ্ন, সোমবার, ১৮ জানুয়ারী ২০২১

ভয়েস ডিজিটাল ডেস্ক

ভারতের চিনার কর্পস-এর জেনারেল অফিসার কমান্ডার (জিওসি) লেফটেন্যান্ট জেনারেল বিএস রাজু বলেছেন, পাকিস্তান কাশ্মীর উপত্যকা থেকে যুবকদের বিভিন্ন মাধ্যমে সন্ত্রাসবাদের দিকে উদ্বুদ্ধ করছে। এবং তাদের নিয়ন্ত্রণরেখা (এলওসি) পেরিয়ে ভারতে ফেরত পাঠাচ্ছে। রবিবার এএনআই-কে দেওয়া এক বক্তব্যে তিনি এ দাবি করেন।

এএনআই-কে দেওয়া একক বক্তব্যে তিনি আরো বলেন, প্রতিবেশী দেশ থেকে সন্ত্রাসীরা জনবহুল এলাকায় আমাদের সুরক্ষা বাহিনী এবং বেসামরিক নাগরিকদের লক্ষ্য করে হামলা চালাচ্ছে। তারা আশা করছে আমাদের নিরাপত্তাবাহিনী প্রতিক্রিয়া দেখাবে এবং আরো বেশি বেসামরিক মানুষ হতাহতের শিকার হবে।

তিনি বলেন, পাকিস্তান যুব সমাজকে বিভিন্ন উপায়ে সন্ত্রাসবাদের দিকে ঠেলে দেওয়ার ক্ষেত্রে মূল ভূমিকা পালন করছে। তারা অনেক যুবককে পড়াশোনার কথা বলে নিয়ে যাচ্ছে। এদের মধ্যে বাছাইকৃতদের সন্ত্রাসবাদে অনুপ্রেরণা দেওয়া হয়। পরে তাদের প্রশিক্ষণ দিয়ে লাইন অব কন্ট্রোল (এলওসি) পার করে ভারতে পাঠানো হয়। অনুপ্রবেশকারীদের এলওসির পাশাপাশি আন্তর্জাতিক সীমান্তের মধ্য দিয়েও প্রেরণ করা হয়।

এ সব পাকিস্তানি সন্ত্রাসীরা জনবহুল অঞ্চলে উপত্যকার মধ্যে আমাদের সুরক্ষা বাহিনী এবং বেসামরিক নাগরিকদের লক্ষ্য করে হামলা চালায়। তাদের প্রত্যাশা আমারা প্রতিক্রিয়া দেখাব এবং তারা আরো বেশি বেসামরিক মানুষকে হত্যা করতে পারবে। পরে তারা এটিকে আমাদের ভাবমূর্তি নষ্ট করার উদ্দেশ্যে প্রচার হিসাবে ব্যবহার করবে বলেন তিনি।

সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমকে ভুল তথ্য ছড়িয়ে দেওয়ার এবং নতুন নিয়োগকারীদের আকর্ষণ করার জন্য পাকিস্তানের বিরুদ্ধে অভিযোগে রাজু পর্যবেক্ষণ করেছেন যে সন্ত্রাসীরা ওভারগ্রাউন্ড থেকে নিচে থাকা কর্মীদের লক্ষ্যকরে গ্রেনেড বা আগুন নিক্ষেপ করে এবং তাদের সন্ত্রাসবাদীদের বিরুদ্ধে পদক্ষেপ নিতে উৎসাহিত করে। তবে জনগণ পাকিস্তানের নকশা সম্পর্কে অবগত রয়েছে বলে জানান রাজু।

সূত্র: এএনআই।