ঢাকা ০২:৪৬ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৩ জুন ২০২৪, ২৯ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

নাইজারে সন্ত্রাসী হামলায় নিহত বেড়ে ১০০

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ০৩:৪৮:১৩ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ৪ জানুয়ারী ২০২১ ৩৯০ বার পড়া হয়েছে
ভয়েস একাত্তর অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

ভয়েস ডিজিটাল ডেস্ক

নাইজারের পশ্চিমাঞ্চলীয় এলাকার সন্ত্রাসী হামলায় নিহতদের সংখ্যা বেড়ে ১০০ জনে দাঁড়িয়েছে। হামলার পরদিন রোববার স্থানীয় মেয়র এ তথ্য জানান। খবর ব্যাংকক পোস্ট’র।

নিরাপত্তা বাহিনী জানায়, তছোম্বাংউ ৭০ জন এবং জারোমদারে গ্রামে ৩০ বেসামরিক নাগরিক নিহত হয়। সন্ত্রাসী হামলার শিকার গ্রাম দুটি টিলাবেরি অঞ্চলে অবস্থিত। এ অঞ্চল ২০১৭ সাল থেকে সন্ত্রাসী গোষ্ঠীর হামলায় আক্রান্ত হচ্ছে। অব্যাহত হামলার কারণে অঞ্চলটিতে জরুরি অবস্থা জারি করা হয়েছিল।

মালি এবং বুরকিনা ফাসোর সীমান্তবর্তী নাইজার প্রায় আল কায়েদা এবং ইসলামি স্টেট আইএস সম্পৃক্ত বিদ্রোহীদের হামলার শিকার হচ্ছে। সংঘাতের কারণে পশ্চিম আফ্রিকার সাহেল অঞ্চলের দেশটিতে ব্যাপক নিরাপত্তা সংকট রয়েছে। সেখানে নিরাপত্তা নিশ্চিতে ফ্রান্সের মতো পশ্চিমা মিত্ররা ওই অঞ্চলে সেনা মোতায়েন করে রেখেছে। হামলরা দায় কোনো গোষ্ঠী স্বীকার করেনি।
জঘন্য এ সন্ত্রাসী হামলার নিন্দা জানিয়েছে তুরস্ক। নাইজারের বন্ধুত্বপূর্ণ, ভ্রাতৃত্বপূর্ণ জনগণ এবং সরকারের প্রতি সহমর্মিতা প্রকাশ করেছে আঙ্কারা।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published.

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

আপলোডকারীর তথ্য
ট্যাগস :

নাইজারে সন্ত্রাসী হামলায় নিহত বেড়ে ১০০

আপডেট সময় : ০৩:৪৮:১৩ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ৪ জানুয়ারী ২০২১

ভয়েস ডিজিটাল ডেস্ক

নাইজারের পশ্চিমাঞ্চলীয় এলাকার সন্ত্রাসী হামলায় নিহতদের সংখ্যা বেড়ে ১০০ জনে দাঁড়িয়েছে। হামলার পরদিন রোববার স্থানীয় মেয়র এ তথ্য জানান। খবর ব্যাংকক পোস্ট’র।

নিরাপত্তা বাহিনী জানায়, তছোম্বাংউ ৭০ জন এবং জারোমদারে গ্রামে ৩০ বেসামরিক নাগরিক নিহত হয়। সন্ত্রাসী হামলার শিকার গ্রাম দুটি টিলাবেরি অঞ্চলে অবস্থিত। এ অঞ্চল ২০১৭ সাল থেকে সন্ত্রাসী গোষ্ঠীর হামলায় আক্রান্ত হচ্ছে। অব্যাহত হামলার কারণে অঞ্চলটিতে জরুরি অবস্থা জারি করা হয়েছিল।

মালি এবং বুরকিনা ফাসোর সীমান্তবর্তী নাইজার প্রায় আল কায়েদা এবং ইসলামি স্টেট আইএস সম্পৃক্ত বিদ্রোহীদের হামলার শিকার হচ্ছে। সংঘাতের কারণে পশ্চিম আফ্রিকার সাহেল অঞ্চলের দেশটিতে ব্যাপক নিরাপত্তা সংকট রয়েছে। সেখানে নিরাপত্তা নিশ্চিতে ফ্রান্সের মতো পশ্চিমা মিত্ররা ওই অঞ্চলে সেনা মোতায়েন করে রেখেছে। হামলরা দায় কোনো গোষ্ঠী স্বীকার করেনি।
জঘন্য এ সন্ত্রাসী হামলার নিন্দা জানিয়েছে তুরস্ক। নাইজারের বন্ধুত্বপূর্ণ, ভ্রাতৃত্বপূর্ণ জনগণ এবং সরকারের প্রতি সহমর্মিতা প্রকাশ করেছে আঙ্কারা।