ঢাকা ০৮:৫৯ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ২৪ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ১২ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

দিল্লির এক বাড়িতে থেকে ৪৮ অক্সিজেন সিলিন্ডার জব্দ

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ০৯:২২:১৬ অপরাহ্ন, শনিবার, ২৪ এপ্রিল ২০২১ ১৮৫ বার পড়া হয়েছে
ভয়েস একাত্তর অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

ভয়েস ডিজিটাল ডেস্ক

ভয়াবহ রূপ নিয়েছে করোনার বিস্তার। ভারতে যখন অক্সিজেনের চরম সংকট, তখন দিল্লির এক বাড়ি থেকেই ৪৮টি অক্সিজেন সিলিন্ডার জব্দ করেছে পুলিশ। গ্রেপ্তার করা হয়েছে, অভিযুক্ত অনিল কুমার নামের এক ব্যক্তিকে।

ভারতে মেডিকেল অক্সিজেনের তীব্র সংকটের মধ্যেই দিল্লির বাড়ি থেকে অক্সিজেনের ৪৮টি সিলিন্ডার জব্দ করা হলো। যার মধ্যে ৩২টি বড় ও ১৬টি ছোট সিলিন্ডার রয়েছে। শুক্রবার এগুলো উদ্ধার করে পুলিশ। খবর ভারতীয় সংবাদমাধ্যম এনডিটিভির।

খবরে বলা হয়েছে, বাড়ির মালিক অনিল কুমার দাবি করেছেন, তিনি শিল্প অক্সিজেনের ব্যবসা করেন। তাকে গ্রেফতার করা হয়েছে। ৫১ বছর বয়সী অনিল তার ব্যবসায়ের জন্য লাইসেন্স দেখাতে পারেননি।

অভিযুক্ত বড় সিলিন্ডার থেকে অক্সিজেন স্থানান্তর করার পরে ১২ হাজার ৫০০ রূপি করে একটি ছোট সিলিন্ডার বিক্রি করতেন। আদালতের অনুমতি পেলে শনিবার পুলিশ উদ্ধার করা সিলিন্ডারগুলো যাদের দরকার তাদের মধ্যে বিতরণ করবেন।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published.

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

আপলোডকারীর তথ্য
ট্যাগস :

দিল্লির এক বাড়িতে থেকে ৪৮ অক্সিজেন সিলিন্ডার জব্দ

আপডেট সময় : ০৯:২২:১৬ অপরাহ্ন, শনিবার, ২৪ এপ্রিল ২০২১

ভয়েস ডিজিটাল ডেস্ক

ভয়াবহ রূপ নিয়েছে করোনার বিস্তার। ভারতে যখন অক্সিজেনের চরম সংকট, তখন দিল্লির এক বাড়ি থেকেই ৪৮টি অক্সিজেন সিলিন্ডার জব্দ করেছে পুলিশ। গ্রেপ্তার করা হয়েছে, অভিযুক্ত অনিল কুমার নামের এক ব্যক্তিকে।

ভারতে মেডিকেল অক্সিজেনের তীব্র সংকটের মধ্যেই দিল্লির বাড়ি থেকে অক্সিজেনের ৪৮টি সিলিন্ডার জব্দ করা হলো। যার মধ্যে ৩২টি বড় ও ১৬টি ছোট সিলিন্ডার রয়েছে। শুক্রবার এগুলো উদ্ধার করে পুলিশ। খবর ভারতীয় সংবাদমাধ্যম এনডিটিভির।

খবরে বলা হয়েছে, বাড়ির মালিক অনিল কুমার দাবি করেছেন, তিনি শিল্প অক্সিজেনের ব্যবসা করেন। তাকে গ্রেফতার করা হয়েছে। ৫১ বছর বয়সী অনিল তার ব্যবসায়ের জন্য লাইসেন্স দেখাতে পারেননি।

অভিযুক্ত বড় সিলিন্ডার থেকে অক্সিজেন স্থানান্তর করার পরে ১২ হাজার ৫০০ রূপি করে একটি ছোট সিলিন্ডার বিক্রি করতেন। আদালতের অনুমতি পেলে শনিবার পুলিশ উদ্ধার করা সিলিন্ডারগুলো যাদের দরকার তাদের মধ্যে বিতরণ করবেন।