ঢাকা ০৭:৫৮ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ২৪ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ১২ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

টেস্টে ১০০ উইকেটের রেকর্ড মিরাজের

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ০৪:১৪:১২ অপরাহ্ন, শনিবার, ১৩ ফেব্রুয়ারী ২০২১ ২২৬ বার পড়া হয়েছে
ভয়েস একাত্তর অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

খেলা ডিজিটাল ডেস্ক

বাংলাদেশ টেস্ট ক্রিকেট দলে সবচেয়ে কম ম্যাচ খেলে ১০০ উইকেট শিকার করার রেকর্ড গড়লেন মেহেদী হাসান মিরাজ। ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে মিরপুর টেস্টে সফরকারিদের দ্বিতীয় ইনিংসে এসে এই কীর্তি গড়েন তিনি।বাংলাদেশের পক্ষে একশ উইকেট শিকার করার তালিকায় রয়েছেন আরো ৩ বোলার। মিরাজের পরপরই রয়েছেন তাইজুল ইসলাম। তিনি মিরাজের চেয়ে মাত্র এক ম্যাচ বেশি খেলে উইকেট শিকারের তালিকায় তিন অংক পূর্ণ করেন তাইজুল।

আর এই ১০০ উইকেট শিকার করতে বাংলাদেশের সেরা ক্রিকেট তারকা সাকিব আল হাসানের লেগেছিলো ২৮ ম্যাচ। এই তালিকায় রয়েছে বাংলাদেশের আরেক বোলার। মোহাম্মদ রফিক তার ক্যারিয়ারে ১০০তম উইকেট শিকার করতে ম্যাচ খেলতে হয়েছিলো ৩৩ ম্যাচ। ঢাকা টেস্টের প্রথম ইনিংসে ১১৩ রানে পিছিয়ে পড়েছে বাংলাদেশ। ম্যাচে নিয়ন্ত্রণ ফিরে পেতে হলে ক্যারিবিয়ানদের দ্বিতীয় ইনিংস অল্পতেই গুটিয়ে দিতে হবে মুমিনুল হকের দলকে। সেই লক্ষ্যে শুরুটা মন্দ হয়নি। দ্বিতীয় ইনিংসের শুরুতেই ওয়েস্ট ইন্ডিজের দুই উইকেট তুলে নিয়েছে বাংলাদেশ।

দলীয় ১১ রানের মাথায় ওয়েস্ট ইন্ডিজের অধিনায়ক ক্রেইগ ব্র্যাথওয়েটকে ফেরান নাঈম হাসান। ২২ রানের মাথায় মোসলেকে সৌম্য সরকারের ক্যাচ বানান মেহেদি হাসান মিরাজ। মোসলেকে ফেরানোর মাধ্যমে টেস্টে একশ উইকেটের মাইলফলক স্পর্শ করলেন মিরাজ।

২৪তম টেস্ট খেলতে নেমে ১০০ উইকেট পেলেন মিরাজ। যা বাংলাদেশের পক্ষে দ্রুততম একশ উইকেটের রেকর্ড। রেকর্ডটি এতোদিন ছিল তাইজুল ইসলামের দখলে। ২৫ টেস্টে ১০০ উইকেট নিয়েছিলেন তাইজুল। মিরাজ আর একটা জায়গাও প্রথম। বাংলাদেশের পক্ষে প্রথম ডানহাতি হিসেবে টেস্টে একশ উইকেট পেলেন মিরাজ। তার আগে একশ উইকেট পাওয়া মোহাম্মদ রফিক, সাকিব আল হাসান, তাইজুল ইসলাম তিনজনই বাঁহাতি।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published.

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

আপলোডকারীর তথ্য
ট্যাগস :

টেস্টে ১০০ উইকেটের রেকর্ড মিরাজের

আপডেট সময় : ০৪:১৪:১২ অপরাহ্ন, শনিবার, ১৩ ফেব্রুয়ারী ২০২১

খেলা ডিজিটাল ডেস্ক

বাংলাদেশ টেস্ট ক্রিকেট দলে সবচেয়ে কম ম্যাচ খেলে ১০০ উইকেট শিকার করার রেকর্ড গড়লেন মেহেদী হাসান মিরাজ। ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে মিরপুর টেস্টে সফরকারিদের দ্বিতীয় ইনিংসে এসে এই কীর্তি গড়েন তিনি।বাংলাদেশের পক্ষে একশ উইকেট শিকার করার তালিকায় রয়েছেন আরো ৩ বোলার। মিরাজের পরপরই রয়েছেন তাইজুল ইসলাম। তিনি মিরাজের চেয়ে মাত্র এক ম্যাচ বেশি খেলে উইকেট শিকারের তালিকায় তিন অংক পূর্ণ করেন তাইজুল।

আর এই ১০০ উইকেট শিকার করতে বাংলাদেশের সেরা ক্রিকেট তারকা সাকিব আল হাসানের লেগেছিলো ২৮ ম্যাচ। এই তালিকায় রয়েছে বাংলাদেশের আরেক বোলার। মোহাম্মদ রফিক তার ক্যারিয়ারে ১০০তম উইকেট শিকার করতে ম্যাচ খেলতে হয়েছিলো ৩৩ ম্যাচ। ঢাকা টেস্টের প্রথম ইনিংসে ১১৩ রানে পিছিয়ে পড়েছে বাংলাদেশ। ম্যাচে নিয়ন্ত্রণ ফিরে পেতে হলে ক্যারিবিয়ানদের দ্বিতীয় ইনিংস অল্পতেই গুটিয়ে দিতে হবে মুমিনুল হকের দলকে। সেই লক্ষ্যে শুরুটা মন্দ হয়নি। দ্বিতীয় ইনিংসের শুরুতেই ওয়েস্ট ইন্ডিজের দুই উইকেট তুলে নিয়েছে বাংলাদেশ।

দলীয় ১১ রানের মাথায় ওয়েস্ট ইন্ডিজের অধিনায়ক ক্রেইগ ব্র্যাথওয়েটকে ফেরান নাঈম হাসান। ২২ রানের মাথায় মোসলেকে সৌম্য সরকারের ক্যাচ বানান মেহেদি হাসান মিরাজ। মোসলেকে ফেরানোর মাধ্যমে টেস্টে একশ উইকেটের মাইলফলক স্পর্শ করলেন মিরাজ।

২৪তম টেস্ট খেলতে নেমে ১০০ উইকেট পেলেন মিরাজ। যা বাংলাদেশের পক্ষে দ্রুততম একশ উইকেটের রেকর্ড। রেকর্ডটি এতোদিন ছিল তাইজুল ইসলামের দখলে। ২৫ টেস্টে ১০০ উইকেট নিয়েছিলেন তাইজুল। মিরাজ আর একটা জায়গাও প্রথম। বাংলাদেশের পক্ষে প্রথম ডানহাতি হিসেবে টেস্টে একশ উইকেট পেলেন মিরাজ। তার আগে একশ উইকেট পাওয়া মোহাম্মদ রফিক, সাকিব আল হাসান, তাইজুল ইসলাম তিনজনই বাঁহাতি।