ঢাকা ০৩:২৫ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৩ জুন ২০২৪, ২৯ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

চীনে ভুয়া ভ্যাকসিন বিক্রির দায়ে আটক ৮০

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ০৪:০০:১৭ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ১০ ফেব্রুয়ারী ২০২১ ২৬৬ বার পড়া হয়েছে
ভয়েস একাত্তর অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

ভয়েস ডিজিটাল ডেস্ক 

   চীনে ভুয়া কোভিড-১৯ ভ্যাকসিন বিক্রির দায়ে জন্য ৮০ জনকে আটক করেছে চীনা পুলিশ। এসময় তিন হাজার নকল কোভিড-১৯ ভ্যাকসিন জব্দ করা হয়েছে। এছাড়া সন্দেহভাজনদের বিরুদ্ধে বেশি মূল্যে করোনাভাইরাস ভ্যাকসিন হিসেবে আগে থেকে ভরে রাখা স্যালাইনের সিরিঞ্জ বিক্রি করারও অভিযোগ রয়েছে।

রাষ্ট্রীয় বার্তা সংস্থা সিনহুয়া গত সোমবার জানিয়েছে, বেইজিং এবং পূর্ব প্রদেশ জিয়াংসু ও শানডংয়ের পুলিশ এই অভিযান চালায়। অভিযানকালে যে জায়গায় ভুয়া ভ্যাকসিন বিক্রি করা হয়েছিল সে জায়গাগুলো তল্লাশি করে পুলিশ।

এদিকে চীন ভ্যাকসিন উৎপাদন ক্ষমতা বাড়িয়ে দিচ্ছে জানিয়ে কর্তৃপক্ষ বলছে, এ পর্যন্ত ২ কোটি ৪০ লাখ ডোজ সরবরাহ করা হয়েছে। এছাড়া এই মাসের শেষে ৫ কোটি লোককে টিকা দেওয়ার লক্ষ্য রয়েছে বলেও কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে।

সিনহুয়ার ওই প্রতিবেদনে আরও বলা হয়েছে, পুলিশ ভুয়া ভ্যাকসিন বিক্রি ও উৎপাদনসহ ভ্যাকসিন সম্পর্কিত যেকোনো অপরাধের বিরুদ্ধে কড়া ব্যবস্থা নেবে। এছাড়া জাল এড়ানোর জন্য জনসাধারণকে সরকারি চ্যানেলের মাধ্যমে এই ভ্যাকসিন আনার বিষয়টি মনে করিয়ে দেয় বার্তা সংস্থাটি।

উল্লেখ্য, ২০১২ সালে কার্যকর হওয়া একটি নতুন ভ্যাকসিন আইনে বলা হয়, জাল ভ্যাকসিন তৈরি ও বিক্রয়কারীদের পণ্যের মূল্য ১৫ থেকে ৫০ গুণ জরিমানা করা যেতে পারে। ফলে যারা নিম্নমানের পণ্য তৈরি কিংবা বিক্রি করবে তাদের ১০ থেকে ৩০ গুণ মূল্যের জরিমানার মুখোমুখি হতে পারে।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published.

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

আপলোডকারীর তথ্য
ট্যাগস :

চীনে ভুয়া ভ্যাকসিন বিক্রির দায়ে আটক ৮০

আপডেট সময় : ০৪:০০:১৭ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ১০ ফেব্রুয়ারী ২০২১

ভয়েস ডিজিটাল ডেস্ক 

   চীনে ভুয়া কোভিড-১৯ ভ্যাকসিন বিক্রির দায়ে জন্য ৮০ জনকে আটক করেছে চীনা পুলিশ। এসময় তিন হাজার নকল কোভিড-১৯ ভ্যাকসিন জব্দ করা হয়েছে। এছাড়া সন্দেহভাজনদের বিরুদ্ধে বেশি মূল্যে করোনাভাইরাস ভ্যাকসিন হিসেবে আগে থেকে ভরে রাখা স্যালাইনের সিরিঞ্জ বিক্রি করারও অভিযোগ রয়েছে।

রাষ্ট্রীয় বার্তা সংস্থা সিনহুয়া গত সোমবার জানিয়েছে, বেইজিং এবং পূর্ব প্রদেশ জিয়াংসু ও শানডংয়ের পুলিশ এই অভিযান চালায়। অভিযানকালে যে জায়গায় ভুয়া ভ্যাকসিন বিক্রি করা হয়েছিল সে জায়গাগুলো তল্লাশি করে পুলিশ।

এদিকে চীন ভ্যাকসিন উৎপাদন ক্ষমতা বাড়িয়ে দিচ্ছে জানিয়ে কর্তৃপক্ষ বলছে, এ পর্যন্ত ২ কোটি ৪০ লাখ ডোজ সরবরাহ করা হয়েছে। এছাড়া এই মাসের শেষে ৫ কোটি লোককে টিকা দেওয়ার লক্ষ্য রয়েছে বলেও কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে।

সিনহুয়ার ওই প্রতিবেদনে আরও বলা হয়েছে, পুলিশ ভুয়া ভ্যাকসিন বিক্রি ও উৎপাদনসহ ভ্যাকসিন সম্পর্কিত যেকোনো অপরাধের বিরুদ্ধে কড়া ব্যবস্থা নেবে। এছাড়া জাল এড়ানোর জন্য জনসাধারণকে সরকারি চ্যানেলের মাধ্যমে এই ভ্যাকসিন আনার বিষয়টি মনে করিয়ে দেয় বার্তা সংস্থাটি।

উল্লেখ্য, ২০১২ সালে কার্যকর হওয়া একটি নতুন ভ্যাকসিন আইনে বলা হয়, জাল ভ্যাকসিন তৈরি ও বিক্রয়কারীদের পণ্যের মূল্য ১৫ থেকে ৫০ গুণ জরিমানা করা যেতে পারে। ফলে যারা নিম্নমানের পণ্য তৈরি কিংবা বিক্রি করবে তাদের ১০ থেকে ৩০ গুণ মূল্যের জরিমানার মুখোমুখি হতে পারে।