ঢাকা ০৮:০০ অপরাহ্ন, রবিবার, ২৩ জুন ২০২৪, ৯ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

কাশ্মীরে শিল্প বিকাশে ২৮ হাজার ৪০০ কোটি রুপির নতুন প্রকল্প অনুমোদন

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ০৪:২৫:৪৫ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ১৯ জানুয়ারী ২০২১ ২৮৪ বার পড়া হয়েছে
ভয়েস একাত্তর অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

ভয়েস ডিজিটাল ডেস্ক

কাশ্মীরে শিল্প বিকাশে ভারতের কেন্দ্রীয় সরকার ২৮ হাজার ৪০০ কোটি রুপির নতুন প্রকল্প অনুমোদন করেছে। দেশটির সরকারি সূত্রের বরাত দিয়ে বার্তা সংস্থা এএনআই জানায়, এটা এক তাৎপর্যপূর্ণ বরাদ্দ। ২০৩৭ সাল নাগাদ হাতে নেওয়া প্রকল্পগুলো বাস্তবায়নে কাজ শেষ হবে। এতে স্থানীয় জনগণের আশা-আকাঙ্খার প্রতিফলন ঘটবে এবং এলাকার সামাজিক, অর্থনৈতিক উন্নয়ন বেশ কয়েক ধাপ এগিয়ে যাবে।

বিপুল অর্থ বরাদ্দের জন্য প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন কাশ্মীরের লেফটেন্যান্ট গভর্নর মনোজ সিনহা। তিনি এক সাংবাদিক বৈঠক করে বলেন, কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলে সরকারি পর্যায়ের পাশাপাশি বেসরকারি পর্যায়েও যাতে কর্মসংস্থানের বিস্তার ঘটে সে জন্যই এ নতুন পদক্ষেপ।

মনোজ সিনহা আরও বলেন, এলাকাভিত্তিক শিল্পকারখানার উৎপাদন সক্ষমতা বাড়ানোর সুযোগও তৈরি করেছে নতুন এ উদ্যোগ। এতে নতুন নতুন ব্যবসাপ্রতিষ্ঠানও আত্মপ্রকাশ করবে। জম্মু ও কাশ্মীরের আত্মনির্ভর হওয়ার পথও এতে সুগম হবে বলে তিনি আশা প্রকাশ করেন

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published.

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

আপলোডকারীর তথ্য
ট্যাগস :

কাশ্মীরে শিল্প বিকাশে ২৮ হাজার ৪০০ কোটি রুপির নতুন প্রকল্প অনুমোদন

আপডেট সময় : ০৪:২৫:৪৫ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ১৯ জানুয়ারী ২০২১

ভয়েস ডিজিটাল ডেস্ক

কাশ্মীরে শিল্প বিকাশে ভারতের কেন্দ্রীয় সরকার ২৮ হাজার ৪০০ কোটি রুপির নতুন প্রকল্প অনুমোদন করেছে। দেশটির সরকারি সূত্রের বরাত দিয়ে বার্তা সংস্থা এএনআই জানায়, এটা এক তাৎপর্যপূর্ণ বরাদ্দ। ২০৩৭ সাল নাগাদ হাতে নেওয়া প্রকল্পগুলো বাস্তবায়নে কাজ শেষ হবে। এতে স্থানীয় জনগণের আশা-আকাঙ্খার প্রতিফলন ঘটবে এবং এলাকার সামাজিক, অর্থনৈতিক উন্নয়ন বেশ কয়েক ধাপ এগিয়ে যাবে।

বিপুল অর্থ বরাদ্দের জন্য প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন কাশ্মীরের লেফটেন্যান্ট গভর্নর মনোজ সিনহা। তিনি এক সাংবাদিক বৈঠক করে বলেন, কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলে সরকারি পর্যায়ের পাশাপাশি বেসরকারি পর্যায়েও যাতে কর্মসংস্থানের বিস্তার ঘটে সে জন্যই এ নতুন পদক্ষেপ।

মনোজ সিনহা আরও বলেন, এলাকাভিত্তিক শিল্পকারখানার উৎপাদন সক্ষমতা বাড়ানোর সুযোগও তৈরি করেছে নতুন এ উদ্যোগ। এতে নতুন নতুন ব্যবসাপ্রতিষ্ঠানও আত্মপ্রকাশ করবে। জম্মু ও কাশ্মীরের আত্মনির্ভর হওয়ার পথও এতে সুগম হবে বলে তিনি আশা প্রকাশ করেন