ঢাকা ১০:৩২ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২১ মে ২০২৪, ৭ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

কাশ্মীরে ‘দুধের এটিএম’!

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ১০:২১:২৭ অপরাহ্ন, সোমবার, ১৫ মার্চ ২০২১ ১৮৩ বার পড়া হয়েছে
ভয়েস একাত্তর অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

ভয়েস ডিজিটাল ডেস্ক

ভাবতে অবাক লাগলেও এটাই সত্যি। ভারতে প্রথম কোনো দুধের এটিএম তৈরি হল কাশ্মীরের পুলওয়ামায়। যা থেকে ২৪ ঘণ্টাই মিলবে দুধ। জম্মু ও কাশ্মীরের পুলওয়ামা জেলা দুধ উৎপাদনের জন্য এমনিতেই বিখ্যাত।
এটিএমের মেশিনটি পুলওয়ামা শহরের চাটপোড়া এলাকার শহীদ পার্কের সামনেই বসানো হয়েছে। প্রাণীসম্পদ বিকাশ দপ্তরের সহযোগিতায় সেখানকার পেশাদার দুধ সরবরাহকারী সাবির আহমেদ ওয়াগাই এটিএম মেশিনটি বসানোর উদ্যোগ নেন। এই এটিএমটি বসানোর ক্ষেত্রে সাবিরকে প্রাণীসম্পদ দপ্তরের পক্ষ থেকে ৫০ শতাংশ ভর্তুকি দিয়ে সাহায্য করা হয়েছে।

এছাড়াও ভর্তুকি দেওয়া হয়েছে বিভিন্ন দুগ্ধ প্রক্রিয়াজাত করণের জন্য। শহরে যাতে দুধের অভাব না হয় এবং সাধারণ মানুষ যাতে খাঁটি দুধই সবসময় পায় সেই বিষয়টি মাথায় রেখেই এটিএমটি বসানো হয়েছে। মেশিনটির ক্ষমতা ৫০০ লিটার এবং মেশিনটির সঙ্গে একটি বাল্ক মিল্ক কুলার লাগানো রয়েছে যা দুধকে ৪ ডিগ্রি সেলসিয়াসে রাখতে পারবে।

এর পাশাপাশি জেলার অন্যত্রও পরে এরকম আরও দুধের এটিএম মেশিন বসানোর ভাবনা রয়েছে প্রাণীসম্পদ বিকাশ দপ্তরের। এই এটিএমটি বসানোর জন্য তাঁকে প্রাণীসম্পদ বিকাশ দপ্তরের অধিকর্তারা সাহায্য করেছেন বলেই এত বড় উদ্যোগকে বাস্তবায়িত করা সম্ভব হয়েছে বলেই জানান সাবির আহমেদের। পুলওয়ামা শহরের স্থানীয় মানুষেরাও এই এটিএম বসানোর উদ্যোগকে স্বাগত জানিয়েছেন। সূত্র: ইন্ডিয়া টুডে/জি-নিউজ।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published.

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

আপলোডকারীর তথ্য
ট্যাগস :

কাশ্মীরে ‘দুধের এটিএম’!

আপডেট সময় : ১০:২১:২৭ অপরাহ্ন, সোমবার, ১৫ মার্চ ২০২১

ভয়েস ডিজিটাল ডেস্ক

ভাবতে অবাক লাগলেও এটাই সত্যি। ভারতে প্রথম কোনো দুধের এটিএম তৈরি হল কাশ্মীরের পুলওয়ামায়। যা থেকে ২৪ ঘণ্টাই মিলবে দুধ। জম্মু ও কাশ্মীরের পুলওয়ামা জেলা দুধ উৎপাদনের জন্য এমনিতেই বিখ্যাত।
এটিএমের মেশিনটি পুলওয়ামা শহরের চাটপোড়া এলাকার শহীদ পার্কের সামনেই বসানো হয়েছে। প্রাণীসম্পদ বিকাশ দপ্তরের সহযোগিতায় সেখানকার পেশাদার দুধ সরবরাহকারী সাবির আহমেদ ওয়াগাই এটিএম মেশিনটি বসানোর উদ্যোগ নেন। এই এটিএমটি বসানোর ক্ষেত্রে সাবিরকে প্রাণীসম্পদ দপ্তরের পক্ষ থেকে ৫০ শতাংশ ভর্তুকি দিয়ে সাহায্য করা হয়েছে।

এছাড়াও ভর্তুকি দেওয়া হয়েছে বিভিন্ন দুগ্ধ প্রক্রিয়াজাত করণের জন্য। শহরে যাতে দুধের অভাব না হয় এবং সাধারণ মানুষ যাতে খাঁটি দুধই সবসময় পায় সেই বিষয়টি মাথায় রেখেই এটিএমটি বসানো হয়েছে। মেশিনটির ক্ষমতা ৫০০ লিটার এবং মেশিনটির সঙ্গে একটি বাল্ক মিল্ক কুলার লাগানো রয়েছে যা দুধকে ৪ ডিগ্রি সেলসিয়াসে রাখতে পারবে।

এর পাশাপাশি জেলার অন্যত্রও পরে এরকম আরও দুধের এটিএম মেশিন বসানোর ভাবনা রয়েছে প্রাণীসম্পদ বিকাশ দপ্তরের। এই এটিএমটি বসানোর জন্য তাঁকে প্রাণীসম্পদ বিকাশ দপ্তরের অধিকর্তারা সাহায্য করেছেন বলেই এত বড় উদ্যোগকে বাস্তবায়িত করা সম্ভব হয়েছে বলেই জানান সাবির আহমেদের। পুলওয়ামা শহরের স্থানীয় মানুষেরাও এই এটিএম বসানোর উদ্যোগকে স্বাগত জানিয়েছেন। সূত্র: ইন্ডিয়া টুডে/জি-নিউজ।