ঢাকা ০৯:৫৬ অপরাহ্ন, সোমবার, ২৭ মে ২০২৪, ১৩ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

অবরোধের ৩৮ ঘণ্টায় ২১ যানবাহনে আগুন

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ০৮:০৯:৪৭ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ৭ নভেম্বর ২০২৩ ১০৭ বার পড়া হয়েছে

বাংলাদেশে অবরোধ চলাকালীন আগুন দিয়ে পুড়িয়ে দেওয়া বাসের পাশে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর একজন সদস্যকে দাঁড়িয়ে থাকতে দেখা যাচ্ছে : ছবি সংগ্রহ

ভয়েস একাত্তর অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

নিজস্ব প্রতিনিধি, ঢাকা

বাংলাদেশের বিএনপি-জামায়াত ও সমমনা বিরোধী রাজনৈতিক দলে ডাকা ৪৮ ঘন্টার অবরোধ কর্মসূচির চলাকালীন ৩৮ ঘন্টায় বিভিন্ন

ধরণের ২১টি গাড়িতে আগ্নিসংযোগের তথ্য জানিয়েছে, ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স সদরদপ্তর।

সোমবার রাতে এক সংবাদ বার্তায় এতথ্য জানিয়েছে সংস্থাটি। আগুণে ক্ষতিগ্রস্ত যানবাহনের মধ্যে রয়েছে, ১৬টি বাস, দুইটি লরি,

প্রাইভেটকার একটি, অটোরিকশা একটি ও একটি লেগুনা।

এক সংবাদ বার্তায় আরও বলা হয়, সোমবার সন্ধ্যা ৬টা পর্যন্ত ঢাকা মহানগরীতে ১২টি, ঢাকা বিভাগে (গাজীপুর, কালিয়াকৈর, নারায়ণগঞ্জ)

চারটি, চট্টগ্রাম বিভাগে (খাগড়াছড়ি, আনোয়ারা, পটিয়া) চারটি, রাজশাহী বিভাগে (বগুড়া) একটি অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটে।

আগুন নির্বাপণে অংশ নেন ফায়ার সার্ভিসের ৪১টি ইউনিটের ২৪২ জন সদস্য।

ফায়ার সার্ভিস পরিসংখ্যান বিশ্লেষণে বলা হয়েছে, দিনের থেকে রাতে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা বেশি ঘটেছে। মোট ২১টি অগ্নিকাণ্ডের মধ্যে

সন্ধ্যা ৬টা থেকে সকাল ৬টা পর্যন্ত ১৬টি আগুনের ঘটনা ঘটে। বাকি পাঁচটি দিনের অন্যান্য সময় সংঘটিত হয়েছে।
ফের ৪৮ ঘণ্টার অবরোধ

৭ নভেম্বর দিন বিএনপি বিপ্লব ও সংহতি দিবস হিসাবে পালন করে থাকে। তাই একদিন বিরতি টেনে ফের ৪৮ ঘণ্টার অবরোধের ডাক দিয়েছে। বুধবার ভোর ৬টা থেকে কর্মসূচি শুরু হবে।

বুধ ও বৃহস্পতিবার অবরোধ কর্মসূচির সঙ্গে একাত্মতা পোষণ করেছে বিএনপির সঙ্গী সমমনা বিরোধী রাজনৈতিক দলগুলো।

ফায়ার সার্ভিস জানায়, ২৮ অক্টোবর থেকে ৬ নভেম্বর পর্যন্ত মোট ১১০টি আগুনের সংবাদ তারা পেয়েছে। তাতে ২৮ অক্টোবর ২৯টি, ২৯ অক্টোবর ১৯টি, ৩০ অক্টোবর-১টি, ৩১ অক্টোবর ১১টি, ১ নভেম্বর ১৪টি, ২ নভেম্বর ৭টি, ৪ নভেম্বর ছয়টি, ৫ নভেম্বর ১৩টি এবং ৬ নভেম্বর ১০টি অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটেছে।

সরকারের পদত্যাগ ও নির্দলীয় সরকারের অধীনে নির্বাচনের দাবিতে বিএনপি গত ২৮ অক্টোবর নয়াপল্টনে মহাসমাবেশ ডাকে। এদিন পুলিশের সঙ্গে সংঘর্ষের জেরে সমাবেশ পরবর্তী ২৯ অক্টোবর হরতালের ডাক দেয়।

এরপর ৩১ অক্টোবর থেকে ২ নভেম্বর সারা দেশে অবরোধ কর্মসূচি পালন করে। আলাদা কর্মসূচি দিয়ে সঙ্গে যোগ দেয় জামায়াত।

বিএনপির সঙ্গে আন্দোলনে থাকা কয়েকটি দলও একই কর্মসূচি ঘোষণা করে। অবরোধ শেষে রোব ও সোমবার নতুন করে ৪৮ ঘণ্টার অবরোধ কর্মসূচির ডাক দেওয়া হয়।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published.

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

আপলোডকারীর তথ্য
ট্যাগস :

অবরোধের ৩৮ ঘণ্টায় ২১ যানবাহনে আগুন

আপডেট সময় : ০৮:০৯:৪৭ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ৭ নভেম্বর ২০২৩

নিজস্ব প্রতিনিধি, ঢাকা

বাংলাদেশের বিএনপি-জামায়াত ও সমমনা বিরোধী রাজনৈতিক দলে ডাকা ৪৮ ঘন্টার অবরোধ কর্মসূচির চলাকালীন ৩৮ ঘন্টায় বিভিন্ন

ধরণের ২১টি গাড়িতে আগ্নিসংযোগের তথ্য জানিয়েছে, ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স সদরদপ্তর।

সোমবার রাতে এক সংবাদ বার্তায় এতথ্য জানিয়েছে সংস্থাটি। আগুণে ক্ষতিগ্রস্ত যানবাহনের মধ্যে রয়েছে, ১৬টি বাস, দুইটি লরি,

প্রাইভেটকার একটি, অটোরিকশা একটি ও একটি লেগুনা।

এক সংবাদ বার্তায় আরও বলা হয়, সোমবার সন্ধ্যা ৬টা পর্যন্ত ঢাকা মহানগরীতে ১২টি, ঢাকা বিভাগে (গাজীপুর, কালিয়াকৈর, নারায়ণগঞ্জ)

চারটি, চট্টগ্রাম বিভাগে (খাগড়াছড়ি, আনোয়ারা, পটিয়া) চারটি, রাজশাহী বিভাগে (বগুড়া) একটি অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটে।

আগুন নির্বাপণে অংশ নেন ফায়ার সার্ভিসের ৪১টি ইউনিটের ২৪২ জন সদস্য।

ফায়ার সার্ভিস পরিসংখ্যান বিশ্লেষণে বলা হয়েছে, দিনের থেকে রাতে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা বেশি ঘটেছে। মোট ২১টি অগ্নিকাণ্ডের মধ্যে

সন্ধ্যা ৬টা থেকে সকাল ৬টা পর্যন্ত ১৬টি আগুনের ঘটনা ঘটে। বাকি পাঁচটি দিনের অন্যান্য সময় সংঘটিত হয়েছে।
ফের ৪৮ ঘণ্টার অবরোধ

৭ নভেম্বর দিন বিএনপি বিপ্লব ও সংহতি দিবস হিসাবে পালন করে থাকে। তাই একদিন বিরতি টেনে ফের ৪৮ ঘণ্টার অবরোধের ডাক দিয়েছে। বুধবার ভোর ৬টা থেকে কর্মসূচি শুরু হবে।

বুধ ও বৃহস্পতিবার অবরোধ কর্মসূচির সঙ্গে একাত্মতা পোষণ করেছে বিএনপির সঙ্গী সমমনা বিরোধী রাজনৈতিক দলগুলো।

ফায়ার সার্ভিস জানায়, ২৮ অক্টোবর থেকে ৬ নভেম্বর পর্যন্ত মোট ১১০টি আগুনের সংবাদ তারা পেয়েছে। তাতে ২৮ অক্টোবর ২৯টি, ২৯ অক্টোবর ১৯টি, ৩০ অক্টোবর-১টি, ৩১ অক্টোবর ১১টি, ১ নভেম্বর ১৪টি, ২ নভেম্বর ৭টি, ৪ নভেম্বর ছয়টি, ৫ নভেম্বর ১৩টি এবং ৬ নভেম্বর ১০টি অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটেছে।

সরকারের পদত্যাগ ও নির্দলীয় সরকারের অধীনে নির্বাচনের দাবিতে বিএনপি গত ২৮ অক্টোবর নয়াপল্টনে মহাসমাবেশ ডাকে। এদিন পুলিশের সঙ্গে সংঘর্ষের জেরে সমাবেশ পরবর্তী ২৯ অক্টোবর হরতালের ডাক দেয়।

এরপর ৩১ অক্টোবর থেকে ২ নভেম্বর সারা দেশে অবরোধ কর্মসূচি পালন করে। আলাদা কর্মসূচি দিয়ে সঙ্গে যোগ দেয় জামায়াত।

বিএনপির সঙ্গে আন্দোলনে থাকা কয়েকটি দলও একই কর্মসূচি ঘোষণা করে। অবরোধ শেষে রোব ও সোমবার নতুন করে ৪৮ ঘণ্টার অবরোধ কর্মসূচির ডাক দেওয়া হয়।